সোমবার, ১৭ জুন ২০২৪, ১১:১১ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম

স্যালুন থেকে এইডস ছড়াতে পারেঃ জানেন না কর্মীরা

স্যালুন থেকে এইডস ছড়াতে পারেঃ জানেন না কর্মীরা

স্টাফ রিপোর্টারঃ স্যালুন থেকে এইডস ছড়াতে পারে এ বিষয়ে ধারণা নেই সাদুল্লাপুর উপজেলার স্যালুনকর্মীদের। অথচ বিশষজ্ঞরা বলছেন, মানবদেহে এইডস ছড়ানোর অন্যতম একটি মাধ্যম স্যালুন। এ বিষয়ে তাদের মধ্যে কোনো সচেতনতা নেই। প্রশিক্ষণের ব্যবস্থাও করা হয়নি। ফলে হাজার হাজার মানুষ ঝুঁকি নিয়ে চুল দাড়ি কাটছে।
স্বাস্থ্যসংশ্লিষ্টরা বলছেন, মানবদেহে অনেক কারণে এইডস ছড়ায়। এর মধ্যে অনিরাপদ যৌন মিলন, আক্রান্ত রোগীর রক্ত গ্রহণ কিংবা এইডস জীবাণুবাহী কিছু দ্বারা শরীর কেটে যাওয়া অন্যতম। স্যালুনকর্মীদের মাধ্যমে কেটে গিয়ে বা অন্য কোনো উপায়ে এ রোগ ছড়ানোর ঝুঁকি রয়েছে।
অথচ স্যালুনকর্মীরা এর ভয়াবহতা সম্পর্কে না জেনেই কাজ করছেন বলে জানান উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ শাহিনুল ইসলাম ম-ল। এ কর্মকর্তার ভাষ্য, স্যালুনকর্মীদের সচেতন করতে তেমন কোনো উদ্যোগ নেই।
২০ বছর ধরে স্যালুনে কাজ করলেও এইডসের বিষয়ে প্রশিক্ষণ পাননি বলে জানান উপজেলা পরিষদ এলাকার স্যালুনকর্মী শরিফুল ইসলাম। তিনি বলেন, উপার্জনের জন্য এ কাজ করছেন। তাদের মাধ্যমে রোগটি ছড়াতে পারে, এটি তাঁর জানা নেই। এ নিয়ে কেউ কখনও বোঝাতে আসেননি।
স্যালুনে চুল কাটা শেষে এবং শেভের পর ফিটকিরি, ক্রিম বা লোসন লাগিয়ে দেন কর্মীরা। এতে স্যালুন থেকে এইডস রোগ ছড়ানো কিংবা অসুস্থ হওয়ার আশঙ্কা নেই বলে দাবি আরেক স্যালুনকর্মী সাদা মিয়ার। তবে তাঁরও এইডস বিষয়ে তেমন ধারণা নেই। জানারও চেষ্টা করেননি।
স্যালুনের ক্ষুর, কাঁচি, ব্লেডসহ অন্য অস্ত্রপাতি সব সময় পরিষ্কার রাখা প্রয়োজন বলে জানান চিকিৎসা কর্মকর্তা সুরঞ্জন কুমার সরকার। তিনি বলেন, এসব সামগ্রী গরম পানিতে চুবিয়ে রাখতে হয়। ব্যবহারের পর সুন্দরভাবে না ধুলে অন্যের শরীরে জীবাণু প্রবেশ করে। কে এইডসের জীবাণু বহন করছে, তা বোঝার দক্ষতা নেই কর্মীদের।
হাট-বাজারে যত্রতত্র বসে অনেকে চুল-দাড়ি কাটার কাজ করেন। স্বল্প আয়ের মানুষ তাদের কাছে যান। তবে তাদের এ বিষয়ে ধারণা নেই বলে দাবি সাদুল্লাপুর বণিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক মশিউর রহমান সাবুর।
সাদুল্লাপুরে প্রায় ৬০০ স্যালুনকর্মী রয়েছেন বলে জানান উপজেলা স্যালুন অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক মফিজুল ইসলাম। তিনি বলেন, স্যালুনে কাজ করায় তাদের অবহেলা করা হয়। প্রশিক্ষণ দেবে কে?

Thank you for reading this post, don't forget to subscribe!

নিউজটি শেয়ান করুন

© All Rights Reserved © 2019
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com