বৃহস্পতিবার, ২৬ নভেম্বর ২০২০, ১১:৫৮ অপরাহ্ন

সুন্দরগঞ্জে স্বামী-স্ত্রীর কলহ মীমাংসা করে দিয়ে এলাকাবাসী হলো মামলার আসামী

সুন্দরগঞ্জে স্বামী-স্ত্রীর কলহ মীমাংসা করে দিয়ে এলাকাবাসী হলো মামলার আসামী

স্টাফ রিপোর্টারঃ স্বামী আব্দুল কাদের ও স্ত্রী হালিমা বেগমের কলহ মীমাংসা করে দিয়ে এলাকার লোকজনই হয়েছেন মামলার আসামী। ঘটনাটি সুন্দরগঞ্জ উপজেলার ছাপরহাটি ইউনিয়নের মরুয়াদহ গ্রামের।
জানা গেছে, ওই গ্রামের হাফিজার রহমানের মেয়ে হালিমা বেগমের সাথে ২০০৯ সালে ৫০ হাজার টাকা দেন মোহরে রেজিস্ট্রি করে একই উপজেলার শান্তিরাম গ্রামের মৃত কাবেজ উদ্দিনের ছেলে আব্দুল কাদেরের বিয়ে হয়। দীর্ঘদিন ঘর সংসার করার পর স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে মনোমালিন্যের সৃষ্টি হয়। এ নিয়ে উভয় পরিবারের মধ্যে দেনদরবারের একপর্যায়ে ২০১৯ সালের ২৪ আগস্ট এলাকায় শালিস বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। এ শালিস বৈঠকে এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গের উপস্থিতিতে তাদের বিবাহ বিচ্ছেদ এবং একই দিনে পুনরায় বিবাহ রেজিস্ট্রি করা হয়। এজন্য ৩ লাখ ৫০ হাজার টাকা দেনমোহর ধার্য করা হয়। এরপর তারা ঢাকায় গিয়ে বাড়ি ভাড়া নিয়ে বসবাস করারপর তাদের মধ্যে আবার নতুন করে মনোমালিন্য সৃষ্টি হলে জোরপূর্বক হালিমা বেগমকে বাড়িতে পাঠায়। কিন্তু স্বামী আব্দুল কাদের পরবর্তীতে ২২ অক্টোবর স্ত্রী হালিমা বেগম এবং শালিস বৈঠকে উপস্থিত থাকা এলাকার নুরুল ইসলাম, আশরাফুল ইসলাম, দুলু মিয়া ও মঞ্জুরুল ইসলামকে আসামী করে সুন্দরগঞ্জ আমলী আদালতে একটি মামলা দায়ের করে। আদালত মামলাটি তদন্ত করে প্রতিবেদন দাখিলের জন্য সুন্দরগঞ্জ উপজেলা সমবায় অফিসারকে নির্দেশ দেন। কিন্তু তদন্ত কর্মকর্তা আনিছুর রহমান বাদির পক্ষে পক্ষপাতদুষ্ট হয়ে বিবাদীদের সঠিকভাবে সাক্ষী গ্রহণ না করে তদন্ত সম্পন্ন করেন বলে অভিযোগ উঠেছে।

নিউজটি শেয়ান করুন

© All Rights Reserved © 2019
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com