সোমবার, ০৪ মার্চ ২০২৪, ১১:৪৯ পূর্বাহ্ন

সাদুল্লাপুরে ডলার প্রতারক গ্রেফতার

সাদুল্লাপুরে ডলার প্রতারক গ্রেফতার

সাদুল্লাপুর প্রতিনিধিঃ সাদুল্লাপুর উপজেলার এক নারীর মোবাইল ফোনে দাদা-নাতনি সম্পর্ক গড়ে ওঠে নরসিংদীর নিজামুল হক (৫৪) নামের এক ব্যক্তির। এরপর তাকে ডলার দেওয়ার কথা বলে সাড়ে ৬ লাখ টাকা হাতিয়ে নেওয়া হয়। এ ঘটনায় প্রতারক চক্রের মূলহোতা শরিফুল ইসলাম (৩৮) কে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গতকাল শনিবার গাইবান্ধা পুলিশ সুপার কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন পুলিশ সুপার কামাল হোসেন। গ্রেফতারকৃত শরিফুল ইসলাম সাদুল্লাপুর উপজেলার জামালপুর ইউনিয়নের এনায়েতপুর গ্রামের মৃত গোলাম হোসেনের ছেলে।
সংবাদ সম্মেলনে বলা হয়, নরসিংদীর মৃত আলাউদ্দিনের ছেলে নিজামুল হকের মোবাইল ফোনে প্রায় ৩ মাস আগে এক অজ্ঞাতনামা নারী ফোন করে দাদা-নাতনির সম্পর্ক সৃষ্টি করে। এরপর ওই নারীর কাছে কিছু আমেরিকান ডলার আছে বলে নিজামুল হককে দেওয়ার প্রস্তাব করেন। সেই সুবাদে নিজামুল ১৩ জানুয়ারি নারীর অনুরোধে সাদুল্লাপুরে ধাপেরহাট এলাকায় আসেন এবং অজ্ঞাতনামা স্থানে তার বাড়িতে নিয়ে যায়। সেখানে একটি ব্যাগে করে প্রায় ১ হাজার পিস আমেরিকান ডলার তাকে দেখায় এবং বলে যে, এখানে ৮ হাজার ডলার আছে। এই ডলার গুলো নিজামুলকে নিয়ে তাদেরকে ৭ লাখ টাকা দিতে বলে। নিজামুলের কাছে টাকা না থাকায় বাড়িতে ফিরে যায়। এ থেকে নারীটি বিভিন্ন সময় ফোন করে তাকে আমেরিকান ডলারগুলো ক্রয় করার জন্য অনুনয় বিনয় করাসহ বিরক্ত করতে থাকে। এ অবস্থায় গত ৬ ফেব্রুয়ারি দুপুরে দিকে সাড়ে ৬ লাখ টাকা নিয়ে নিজামুল সাদুল্লাপুরের ধাপেরহাট বাজারের চতরাগামী পাকা রাস্তার পাশে পৌঁছালে ওই নারীটি নিজামুলকে নিয়ে অজ্ঞাতস্থানে এক বাড়িতে নিয়ে যায়। এ বাড়িতে একাধিক লোক এসে তারা সকলে মিলে একটি কালো ব্যাগে ডলার দেখিয়ে সাড়ে ৬ লাখ টাকা গ্রহণ করে। একপর্যায়ে মোটরসাইকেলে উঠিয়ে তাদের সহযোগী দ্বারা বিকেলের দিকে ধাপেরহাট বাসস্ট্যান্ডে পৌঁছে দেয়। পরবর্তী নিজামুল গাড়িযোগে নরসিংদীতে চলে যায়। এ ঘটনায় প্রতারণার শিকার হলে ভুক্তভোগি নিজামুল সাদুল্লাপুর থানায় একটি এজাহার দাখিল করেন।
এদিকে সাদুল্লাপুর থানা পুলিশের একটি দল এজাহারের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে বাদীর লুণ্ঠিত টাকার মধ্যে সাড়ে ৫ লাখ টাকা, অপরাধ কাজে ব্যবহৃত একটি মোটরসাইকেল, ইজিবাইক ও চার্জার ভ্যান জব্দসহ ডলার প্রতারক চক্রের মূলহোতা শরিফুল ইসলামকে গ্রেফতার করেন। এছাড়া বিশেষ কায়দায় বান্ডিল আকারে ১৩টি বিস্কিট ও কয়েলের ফাঁকা কার্টুন এবং ডলারের বান্ডিল সাদৃশ ৫টি বান্ডিল, কথিত আমেরিকান ১ ডলার সাদৃশ্য নোট জব্দ করা হয়েছে।

Thank you for reading this post, don't forget to subscribe!

নিউজটি শেয়ান করুন

© All Rights Reserved © 2019
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com