শনিবার, ১৮ মে ২০২৪, ০৭:০৬ অপরাহ্ন

সাদুল্লাপুরে ইরি-বোরো রোপনে ব্যস্ত কৃষক-শ্রমিক

সাদুল্লাপুরে ইরি-বোরো রোপনে ব্যস্ত কৃষক-শ্রমিক

সাদুল্লাপুর প্রতিনিধিঃ সাদুল্লাপুর উপজেলায় অব্যাহত রয়েছে হাড়কাঁপানো শীত। এ শীতেও গ্রামাঞ্চলে বসে নেই কেউ। শীতকে উপেক্ষা করে হাঁটুকাদায় নেমেছে কৃষক-শ্রমিকরা। এ কাদায় রোপন শুরু করেছে ইরি ধানের চারা। এসব চারা থেকে ফসল নিয়ে মৌলিক চাহিদা পুরণে স্বপ্নে দেখছেন তারা।
গতকাল বুধবার সাদুল্লাপুর উপজেলার বিভিন্ন গ্রামাঞ্চলের মাঠে দেখা যায় কৃষক-শ্রমিকের ব্যস্ততা। এসময় জমি প্রস্তুৃতিসহ কেউ কেউ তুলছিলেন ইরি-বোরো ধানচারা। আবার কেউ বা রোপন কাজে কোমর বেঁধে কাদা মাটিতে নেমেছিলেন।
জানা গেছে, শষ্য ভা-ার জেলা হিসেবে পরিচিত সাদুল্লাপুর উপজেলা। এ উপজেলার অধিকাংশ মানুষ কৃষি ফসলের ওপর নির্ভশীল। এসবের মধ্যে তাদের প্রধান ফসল হচ্ছে ইরি-বোরো ধান। এ দিয়ে জীবিকা নির্বাহের স্বপ্ন দেখেন তারা। এবারও তা ব্যর্তয় ঘটেনি। এ স্বপ্নের বাস্তব রূপ দিতে এরই মধ্যে বীজতলা থেকে চারা সংগ্রহ করে তা রোপন করতে শুরু করেছে।
সাদুল্লাপুর উপজেলা কৃষি বিভাগ সুত্রে জানা গেছে, চলতি ইরি-বোরো মৌসুমে উপজেলার ১১টি ইউনিয়নে ১৫ হাজার ৬৪৩ হেক্টর জমিতে ইরি ধানচারা রোপন করার লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে। এতে প্রায় ৭০ হাজার ৯১৬ মেট্রিকটন ধান উৎপাদনের সম্ভাবনা রয়েছে।
কৃষক ছাইফুল ইসলাম বলেন, গেল আমন মৌসুমে ধানের কিছুটা ক্ষতি হয়েছে। এ ক্ষতি পূষিয়ে নিতে এ বছর এক একর জমিতে ইরি-বোরো ধান আবাদের প্রস্তুতি নিচ্ছি। ইতোমধ্যে এক বিঘা জমিতে রোন কাজ সম্পন্ন হয়েছে।
আরেক কৃষক জহির উদ্দিন জানান, আবওহা অনুকুল ও সার-কীটনাশকের দাম নিয়ন্ত্রণে থাকলে এবার আশানুরূপ ফলন ঘরে তোলা সম্ভব।
উপ সহকারী কৃষি কর্মকর্তা আবু তাহের মিয়া জানান, চারা রোপনের কয়েক দিনের মধ্যে জমিতে পার্চিং বসানোর পরামর্শ দেওয়া হচ্ছে। সেই সঙ্গে অধিক ফলনের কলা-কৌশলও শেখানো হচ্ছে।
সাদুল্লাপুর উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মতিউল আলম জানান, কৃষকরা যাতে করে ভালো ফলন পান, সে লক্ষ্যে কৃষকদের সার্বিক সহযোগিতায় মাঠপর্যায়ে কাজ করা হচ্ছে।

Thank you for reading this post, don't forget to subscribe!

নিউজটি শেয়ান করুন

© All Rights Reserved © 2019
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com