শনিবার, ৩১ অক্টোবর ২০২০, ১০:২১ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম
সাধারণ মানুষ নিজেরাই যাতে নিজেদেরকে সাবলম্বী করে তুলতে পারে এজন্য তাদেরকে উদ্বুদ্ধ করতে হবে -ডেপুটি স্পীকার কুপতলায় ২য় শ্রেণির ছাত্রী ধর্ষণের চেষ্টায় মামলা দায়ের গাইবান্ধায় কলেজ ছাত্রকে কুপিয়ে জখম ॥ গ্রেফতার ১ পলাশবাড়ীতে ধর্ষণের চেষ্টা মামলার ওয়ারেন্টভূক্ত আসামী গ্রেফতার গাইবান্ধায় কমিউনিটি পুলিশিং ডে পালিত ফ্রান্সে মুহাম্মাদ (সাঃ) এর ব্যাঙ্গাত্বক চিত্র প্রদর্শনের প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিল গোবিন্দগঞ্জে সড়ক দুর্ঘটনায় কলেজ শিক্ষক নিহত সাঘাটায় নৌকা বাইচ প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত চরাঞ্চলের মানুষের দুঃখ দূর্দশা লাঘবের জন্য চর উন্নয়ন বোর্ড করা দরকার -ডেপুটি স্পীকার প্রেমের ফাঁদে ফেলে ১৬ বছরের কিশোরীকে ধর্ষণঃ ধর্ষক গ্রেফতার

সাদুল্যাপুরে ত্রাণের দাবিতে বিক্ষোভ ও ভাংচুর ঘটনায় থানায় অভিযোগ দায়ের

সাদুল্যাপুরে ত্রাণের দাবিতে বিক্ষোভ ও ভাংচুর ঘটনায় থানায় অভিযোগ দায়ের

স্টাফ রিপোর্টারঃ করোনা ভাইরাসের কারণে কর্মহীন দিনমজুর ও শ্রমিকরা ত্রাণের দাবিতে গত মঙ্গলবার দুপুরে গাইবান্ধার সাদুল্যাপুরের ফরিদপুর ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয় চত্বরে বিক্ষোভ করেছে। এতে ওই ইউনিয়নের ৬নং ওয়ার্ডের চক গোবিন্দপুর ও আলদাদপুর গ্রামের শত শত কর্মহীন দিনমজুর এবং শ্রমিকরা অংশ নেন।
এসময় বিক্ষুদ্ধ কর্মহীন লোকজন দু’টি মোটরসাইকেল ও ইউপি ভবনের দরজা-জানালা ভাংচুর করেছে বলে অভিযোগ তুলে সাদুল্যাপুর থানায় গতকাল বুধবার একটি অভিযোগ দায়ের করেছে ইউপি সচিব সেলিম আকতার।
ইউনিয়ন পরিষদের সচিব সেলিম আকতার বলেন, মঙ্গলবার জিআরের দুই টন চালসহ ডাল ও আলু দুই শতাধিক অসহায় দরিদ্র পরিবারের মাঝে বিতরণের জন্য প্রস্তুতি চলছিলো। এই চালগুলো ১০ কেজি করে প্যাকেট করার সময় ইউনিয়ন পরিষদ সংলগ্ন এলাকার ৫-৬ শতাধিক মানুষ এসে ত্রানের দাবি করে। পরে তাদেরকে বুঝিয়ে বিদায় করে দেওয়া হয়। তিনি অভিযোগ করে আরও বলেন, পরে ওই ত্রাণগুলো বিতরণের জন্য মাস্টার রোল তৈরী করার সময় আবারও ওই লোকজন ইউনিয়ন পরিষদে এসে আমার ও চেয়ারম্যানের দু’টি মোটরসাইকেল এবং ইউপি ভবনের দরজা-জানালা ভাংচুর করে।
কর্মহীন চক গোবিন্দপুর ও আলদাদপুর গ্রামের লোকজন জানান, তাদের গ্রামের মাত্র ২৫ জনকে এ পর্যন্ত ইউপি চেয়ারম্যান ১০কেজি করে চাল দিয়েছেন। অথচও পার্শ্ববর্তী গ্রামগুলোতে এই সংখ্যা দ্বিগুন। তারা আরও জানান, তার (ইউপি চেয়ারম্যান) কাছে ত্রাণ সহায়তার জন্য গেলে তিনি গালিগালাজ করেন এবং বলেন, সরকারী বরাদ্দ আসলে দেওয়া হবে। কিন্তু বরাদ্দ আসে শেষ হয়। কিন্তু আমারা সেই ত্রাণ পাই না।
ফরিদপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ নুর আজম মন্ডল নিরব বলেন, সরকারী বরাদ্দের সাত মেট্রিক টন চাল ইউনিয়নের অসহায়-অসচ্ছল পরিবারের মাঝে বিতরণ চলমান আছে। ইতোমধ্যে পাঁচ শতাধিক মানুষকে ১০ কেজি করে চাল দেয়া হয়েছে। উপজেলা নির্বাহি কর্মকর্তা মোঃ নবীনেওয়াজ জানান, বিষয়টি তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

নিউজটি শেয়ান করুন

© All Rights Reserved © 2019
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com