শনিবার, ১৬ জানুয়ারী ২০২১, ১২:১৪ পূর্বাহ্ন

সাঘাটা ও ফুলছড়িতে সরিষার বাম্পার ফলন

সাঘাটা ও ফুলছড়িতে সরিষার বাম্পার ফলন

সাঘাটা প্রতিনিধিঃ সাঘাটা ও ফুলছড়ি উপজেলায় এবারে সরিষার বাম্পার ফলন হয়েছে। দুই উপজেলায় বিস্তৃর্ণ ফসলের মাঠে এখন বাতাসে হলুদের ঢেউ বইছে। সরিষার এই ফলনে কৃষকের চোখে মুখে আনন্দের আভা ফুটে উঠেছে। চাষিরা বলছেন, আবহাওয়া অনুকূলে থাকায় এবার ফলন ভালো হয়েছে।
জানাগেছে,গাইবান্ধার সাঘাটা ও ফুলছড়ি উপজেলায় এ বছর লক্ষ্যমাত্রার দ্বিগুণ জমিতে সরিষা চাষ করা হয়েছে। প্রত্যন্ত অঞ্চলের মাঠে মাঠে সরিষার গাছের হলুদ ফুলের সমারোহ অবলোকনে পথিক মানুষসহ সকল কৃষকের মন ভরে যায়। স্থানীয় কৃষি বিভাগের ধারণা প্রাকৃতিক দুর্যোগ না হলে সরিষা চাষিরা এবার আর্থিকভাবে লাভবান হবেন। অন্য যেকোনো আবাদের চেয়ে সরিষা চাষে তুলনামূলক খরচ ও পরিশ্রম কম হওয়ায় অন্যান্য বছরের তুলনায় এবার বেশি জমিতে সরিষা চাষ করা হয়েছে। বিগত বন্যায় রোপা আমন ফসল বিনষ্ট হওয়ায় ওইসব জমিতে স্বল্প সময়ে অধিক ফলন পাওয়ার আশায় সরিষার আবাদ করেছেন চাষীরা। যথাসময়ে সার বীজ পাওয়ায় ভাল ফলনের স্বপ্ন দেখছে কৃষককুল।
সরেজমিনে গতকাল উপজেলার প্রত্যন্ত চরাঞ্চলসহ বিভিন্ন এলাকা ঘুরে দেখা যায়, মাঠে মাঠে জমিতে শোভা পাচ্ছে হলুদের সমারোহ সরিষা ক্ষেত। শীতের কুয়াশাকে উপেক্ষা করে চাষীরা সরিষা ক্ষেতের যতœ নিচ্ছেন। আবহাওয়া অনুকুলে এবং সারবীজ সংকট না থাকায় সরিষা বীজ বুনে ভাল ফলনের আশা করছেন তারা।
ফুলছড়ি উপজেলার উদাখালী ইউনিয়নের ছালুয়া গ্রামের তফিল উদ্দিন, আব্দুল আজিজ, উড়িয়া ইউনিয়নের রতনপুর গ্রামের ছায়দার রহমান সাঘাটার সেলিম মিয়াসহ বেশ কয়েকজন কৃষক জানান, তারা উপ-সহকারি কৃষি কর্মকর্তাদের পরামর্শক্রমে বারী-৭, ৯, ১৪ ও ১৫, টরি-৭, বিএডিসি-১, বিনা-৭ জাতের সরষে আবাদ করেছেন। সুষম সার প্রয়োগের ফলে তাদের জমির ফলন খুব ভালো হয়েছে। কৃষকরা বলেন, বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধ ভেঙে বিগত বন্যায় আমন ধানের ক্ষেত সম্পূর্ণ বিনষ্ট হয়েছে। এতে কৃষকরা অনেক ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে। এ ক্ষতি কিছুটা পুষিয়ে নিয়ে উক্ত জমিতে সরিষার চাষ করেছি। তাছাড়া সরিষা ঘরে তুলে যথাসময়ে বোরো ধান রোপণ করা যাবে। ফলে কম খরচে স্বল্প সময়ে সরিষার আবাদ করে আর্থিকভাবে কিছুটা লাভবান হওয়া যাবে। আধুনিক পদ্ধতিতে ভালো বীজ দিয়ে সরিষা চাষ করে ফলন ভালো পাওয়া যায়। সাঘাটা উপজেলা কৃষি অফিসার সাদেকুজ্জামান জানান, উপ-সহকারি কৃষি কর্মকর্তা ও কৃষকদের নিয়ে নিয়মিত মতবিনিময়সহ তাদেরকে নতুন জাতের সরিষা চাষে উদ্বুদ্ধ করা হয়েছে। গতবারের চেয়ে এবার সরিষার চাষ বেশি করেছেন কৃষকরা। চলতি মৌসুমে ফুলছড়ি উপজেলায় ১১শ ৬০ হেক্টর জমিতে সরিষা চাষ করা হয়েছে। খরচ বাদে কৃষক অন্য ফসলের চেয়ে লাভবান বেশি হবে। সাঘাটার কৃষি কর্মকর্তা রিপন মিয়ার সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, অনুকূল আবহাওয়া আর যথাযথ পরিচর্চার কারণে এবার সরিষার বাম্পার ফলন হয়েছে। মাঘ মাসের শেষ দিকে ও ফাগুনের শুরুতে ক্ষেত থেকে সরিষা তোলা শুরু হবে। অন্যান্য ফসলের তুলনায় সরিষার উৎপাদন খরচ কম হওয়ায় এবং গত কয়েক বছর ধরে বাজারে সরিষার ভালো দাম থাকায় চাষিরা দিন দিন সরিষা চাষের দিকে ঝুঁকছেন।

নিউজটি শেয়ান করুন

© All Rights Reserved © 2019
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com