বৃহস্পতিবার, ১৮ জুলাই ২০২৪, ১১:০১ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম
খোর্দ্দকোমরপুর ইউপির উপনির্বাচন স্থগিত কোটা পদ্ধতি সংস্কারের দাবিঃ গাইবান্ধায় আ’লীগ-বিএনপির অফিসে-হামলা-অগ্নিসংযোগ সুন্দরগঞ্জে কোটা নিয়ে মাধ্যমিক শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ সুন্দরগঞ্জে নিখোঁজ যুবকের লাশ একদিন পর উদ্ধার গোবিন্দগঞ্জে ২ মাহিলা ছিনতাইকারী গ্রেফতার মহিমাগঞ্জে প্রধান গ্রুপের সার্ভার স্টেশনে অগ্নিকান্ডে ৫০ লক্ষ টাকার ক্ষতি পলাশবাড়ীতে মোটরসাইকেল সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ২ঃ আহত ১ জন গোবিন্দগঞ্জ সরকারি উচ্চ বিদ্যালেয়ের শিক্ষার্থীদের মাঝে ফলজ বৃক্ষের চারা বিতরণ তিস্তার পানি কমার সাথে সাথে পাল্লা দিয়ে ভাঙন শুরু হয়েছে পলাশবাড়ীতে মটরসাইকেলের ধাক্কায় যুবক নিহত

সাঘাটায় মাসকলাই চাষে সাফল্যের আশা কৃষকের

সাঘাটায় মাসকলাই চাষে সাফল্যের আশা কৃষকের

স্টাফ রিপোর্টারঃ মাসকলাই একটি অত্যন্ত পরিচিত ডাল। এই ডাল ভীষণ সুস্বাদু। শুধু তাই নয়, এটি পুষ্টিকরও বটে। এতে রয়েছে একাধিক পুষ্টিগুণ। ডালটি যেমন আমাদের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায় তেমনি স্বাস্থ্য ভালো রাখে। চলতি মৌসুমে যমুনার চরে মাসকলাই চাষ করে ব্যাপক সাফল্য পাওয়ার আশা করছেন সাঘাটা উপজেলার চরাঞ্চলের কৃষকরা।
এবারের মৌসুমে আবহাওয়া অনুকূলে থাকায় ভালো ফলনের আশা করছেন তারা। অল্প কিছুদিন পরেই মাসকলাই কাটা মাড়াই শুরু করবেন চরাঞ্চলের চাষিরা। কম খরচ ও অল্প পরিশ্রমে লাভ বেশি হওয়ায় দিন দিন মাসকলাই চাষে আগ্রহী হচ্ছেন কৃষকরা।
উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর সূত্রে জানা যায়, চলতি মৌসুমে সাঘাটার গারামারা, পাতিলবাড়ি, দীঘলকান্দি, হাটবাড়ী, গুয়াবাড়িসহ বিভিন্ন চরে মাসকলাই করা হয়েছে। এবার মাসকলাই চাষের লক্ষ্যমাত্রা ৫০ হেক্টর থাকলেও চাষ করা হয়েছে ৫৬ হেক্টর জমিতে। বিঘা প্রতি মাত্র দেড় থেকে দুই হাজার টাকা খরচ করে ৭ থেকে ৮ মণ হারে ফলন আশা করছেন কৃষকরা। মাত্র দুই মাসের ব্যবধানে খরচ বাদ দিয়ে চাষিদের লাভ হচ্ছে বিঘা প্রতি ৩০-৩৫ হাজার টাকা।
গারামারা চরের বাসিন্দা কৃষক জাফর আলী বলেন, এবারের মৌসুমে কৃষি গবেষণার উদ্ভাবিত জাত বারি মাসকলাই-৩ এর বিনামূল্যে বীজ ও পরামর্শ নিয়ে চরে ৫ বিঘা জমিতে মাসকলাইয়ের চাষ করেছি। এতে খরচ হয়েছে ১২ হাজার টাকার মতো। ৫ বিঘা জমিতে ৩৫/৪০ মণ মাসকলাই পাওয়া যাবে। ৩৫শ থেকে ৪ হাজার টাকা মণ হিসেবে বিক্রি করলেও ১ লাখ ৪০-৪৫ হাজার টাকা আয় হওয়ার আশা করছেন তিনি।
সাঘাটায় দায়িত্বরত সহকারী বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা হারুন-অর-রশিদ জানান, চলতি মৌসুমে কৃষি গবেষণার উদ্ভাবিত জাত বারি মাসকলাই-৩ এর বিনামূল্যে বীজ ও পরামর্শ দেয়া হয়েছে চরাঞ্চলের কৃষককে। এই জাতের মাসকলাই এর ফলন অনেক বেশী হয়। আগামীতে আরো বেশী জমিতে এই জাতের মাসকলাই চাষের পরিকল্পনা রয়েছে।
উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা কৃষিবিদ সাদেকুজ্জামান বলেন, চরাঞ্চলে মাসকলাই, মশুর, বুট, খেসারি, মুগ, ধনিয়া, কালোজিরা, রসুন, পিঁয়াজ, বাদাম, ভুট্টা চায়ের প্রচলন আগে থেকেই আছে। আগের চেয়ে এখন চাষাবাদ অনেক উন্নত এবং উচ্চ ফলনশীল ফসল হচ্ছে চরে।
কৃষি বিভাগের পরামর্শের পাশাপাশি প্রশিক্ষণের মাধ্যমে আধুনিক ও উচ্চ ফলনশীল জাতের মাসকলাই চাষের প্রতি কৃষককে দক্ষ করে গড়ে তোলা হচ্ছে।

Thank you for reading this post, don't forget to subscribe!

 

নিউজটি শেয়ান করুন

© All Rights Reserved © 2019
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com