রবিবার, ১৯ মে ২০২৪, ০১:২০ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম

সাঘাটায় নৈশ প্রহরী আত্নহত্যা

সাঘাটায় নৈশ প্রহরী আত্নহত্যা

সাঘাটা প্রতিনিধিঃ সাঘাটা উপজেলার যাদুর তাইড় গ্রামে চুরির অপবাদ সইতে না পেরে গত রবিবার ভোরে আত্নহত্যা করেছে ভাদু বিশ্বাস (৫৫) নামের নৈশ প্রহরী।
স্থানীয়রা ও পরিবার সূত্র জানায়, উপজেলার যাদুর তাইড় গ্রামের পূর্ন চন্দ্র বিশ্বাসের ছেলে ভাদু বিশ্বাস সাঘাটা টেকনিক্যাল এন্ড বিজনেস ম্যানেজমেন্ট কলেজের নৈশ প্রহরী হিসাবে কর্মরত ছিল। গত শুক্রবার উক্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে রাতে দুটি কম্পিউটার এবং ল্যাপটপ চুরি হয়। অধ্যক্ষ নওয়াব আলী সাজু গত শনিবার সাঘাটা থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। থানার এ এস আই মোশারফ ঘটনা স্থলে তদন্তে এসে নৈশ প্রহরী ভাদুকে আটক করে থানায় নিয়ে যায়। বিষয়টি স্থানীয় ভাবে মিমাংশার কথা বলে প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধিরা মুচলিকা দিয়ে ছেড়ে নিয়ে আসেন। অধ্যক্ষ নওয়াব আলী সাজু ও স্থানীয় ঘুড়িদহ ইউনিয়নের সাবেক ইউপি সদস্য আজহার আলী মিন্টু চুরি মালামাল বাবদ তিন লক্ষ টাকা জরিমানা দাবি করে ভাদুর কাছে। তা না হলে জেল হাজতে পাঠাবে বলে হুমকি দেয়। গরিব মানুষ তিন লক্ষ টাকার চিন্তায় অপবাদ সইতে না পেরে রাতে সবার অজান্তে রান্না ঘরে ধর্নার সাথে রশি দিয়ে গলায় ফাঁস দেয়। স্ত্রী ঘুম থেকে উঠে দেখে তার স্বামী বিছানায় নেই। খোজা খুজির এক পর্যায়ে রান্না ঘড়ে দেখতে পেয়ে বাচানোর চেষ্টায় রশি খুলে মাটিতে নামায় ও ততক্ষণে সে মারা যায়। স্থানীয় আবুল কালাম আজাদ বলেন, ভাদু খুব ভাল মানুষ ছিলেন। ভাদুর স্ত্রী সুধারানী বলেন, অধ্যক্ষ নওয়াব আলী সাজু তিন লাখ টাকা চাওয়ায় সে চিন্তায় রাতে ফাঁস দিয়ে মারা যায়। অধ্যক্ষ নওয়াব আলী সাজু ও সাবেক ইউপি সদস্য আজহার আলী মিন্টু সাথে কথা হলে তারা তিন লক্ষ টাকা চাওয়ার বিষয়টি অস্বীকার করেন। সাঘাটা থানা অফিসার ইনচার্জ বেলাল হোসেন জানান, অভিযোগের প্রেক্ষিতে ভাদুকে থানায় আনা হয়।

Thank you for reading this post, don't forget to subscribe!

নিউজটি শেয়ান করুন

© All Rights Reserved © 2019
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com