সোমবার, ২০ মে ২০২৪, ০৩:২৫ অপরাহ্ন

সাঘাটায় ক্যামেরা বন্ধক রাখাকে কেন্দ্র করে বন্ধুর হাতে বন্ধু খুন

সাঘাটায় ক্যামেরা বন্ধক রাখাকে কেন্দ্র করে বন্ধুর হাতে বন্ধু খুন

সাঘাটা প্রতিনিধিঃ সাঘাটার শ্যামপুর গ্রামের আফজাল হোসেনের ছেলে জাকারিয়া হোসেন সম্রাট (১৭) অনলাইনে জুয়া খেলার টাকাকে কেন্দ্র করে বন্ধুর হাতে বন্ধু খুন হয়েছে। জানা গেছে, সাঘাটা উপজেলার পশ্চিম বাটি গ্রামের মিলন হাজারীর ছেলে রিফাত হোসেন (১৫) এর সাথে একই উপজেলার বাংলাবাজার এলাকার জাকারিয়া হোসেন সম্রাট একই বিদ্যালয়ে পড়ার সুবাদে বন্ধুত্ব গড়ে ওঠে। দুজনেই অনলাইন জুয়া খেলে । খেলার এক পর্যায়ে জাকারিয়া হোসেন সম্রাট অনলাইনে জুয়া খেলে টাকা হারলে রিফাতের কাছে তার শখের ক্যামেরা বন্ধক রাখে, কিছুদিন অতিবাহিত হয়ে গেলে রিফাত অনলাইন জুয়া খেলে সেও টাকা হারে এবং বন্ধুর কাছ থেকে বন্ধক নেয়া ক্যামেরা অন্য আরেক জনের কাছে বিক্রি করে। সম্রাট মিয়ার টাকা জোগার হলে বন্ধক রাখা ক্যামেরা ফেরত নেওয়ার জন্য রিফাতের বাড়িতে আসে। রিফাত ক্যামেরাটি অন্য জনের কাছে বিক্রি করায় সে ক্যামেরা ফেরত দিতে পারে না। এ নিয়ে তাদের মধ্যে বাগবির্তক সৃষ্টি হয়। এর এক পর্যায়ে গত ১৭ এপ্রিল সন্ধ্যায় সম্রাটকে বাড়ী থেকে ডেকে নিয়ে আসে রিফাত সেই দিন থেকেই সম্রাট নিখোঁজ। এ নিয়ে থানায় সাধারণ জিডি করে সম্রাটের মা-বাবা । এর ভিত্তিতে পুলিশ গত ১৯ এপ্রিল বিকালে রিফাতকে থানায় নিয়ে আসে এবং জিজ্ঞাসাবাদ করে। তার তথ্য মতে ওই রাতে রিফাত তাকে হত্যা করে এবং বাড়ির পাশে পায়খানার সেফটি ট্যাংকির ভেতরে রেখে দেয়। পুলিশ রিফাতকে সাথে নিয়ে ঘটনার স্থানে যায়। রিফাতের বাড়ির পাশে সেফটি ট্যাং থেকে সম্রাটের লাশটি উদ্ধার করে। পুলিশ রিপোর্ট সংগ্রহ করে লাশটি ময়না তদন্তের জন্য গাইবান্ধা মরগে প্রেরণ করে । পরে জাকারিয়ার মা মিনি বেগম বাদী হয়ে সাঘাটা থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। এ বিষয়ে থানার অফিসার ইনচার্জ মমতাজুল হকের সাথে কথা হলে তিনি জানান তদন্ত করে হত্যার সাথে জড়িতদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে ।

Thank you for reading this post, don't forget to subscribe!

নিউজটি শেয়ান করুন

© All Rights Reserved © 2019
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com