রবিবার, ০৫ ডিসেম্বর ২০২১, ০৭:৩৭ পূর্বাহ্ন

সবুজ চাদরে ছেয়ে আছে বিস্তীর্ণ ফসলের মাঠ!

সবুজ চাদরে ছেয়ে আছে বিস্তীর্ণ ফসলের মাঠ!

স্টাফ রিপোর্টারঃ গাইবান্ধার ফসলের মাঠ এখন সুজলা সুফলা শস্য শ্যামলা সবুজ প্রান্তরে পরিণত হয়েছে। দৃষ্টি জুড়ে এখন সবুজ ধানের প্রান্তর। প্রতিটি মাঠ এখন কৃষকের সবুজ স্বপ্নে ছেঁয়ে গেছে। যে দিকে চোখ যায় শুধু সবুজ আর সবুজ । আর এই সবুজ ধানক্ষেতে লুকিয়ে আছে কৃষকের সোনালী স্বপ্ন । গাইবান্ধার সাতটি উপজেলার প্রতিটি মাঠের বুকে এখন সবুজের সমারোহ। দিগন্তজুড়ে যে দিকে তাকাই শুধু সবুজ আর সবুজ। সবুজের সমারোহে চোখ জুড়িয়ে যায়। বোরো ধানের বাম্পার ফলনের আশায় কৃষকের মুখে এখন হাসির ঝিলিক। ধানক্ষেতের পরিচর্যায় মাঠগুলো এখন কৃষকদের পদভারে মুখরিত হয়ে উঠেছে।
কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর সূত্রে জানা যায়, গাইবান্ধা জেলার সাত উপজেলায় এবছর, ১ লক্ষ ২৭ হাজার ৮৫০ হেক্টর জমিতে বোরো ধানের আবাদ হয়েছে । এদিকে দাম বাড়ায় গত বছরের তুলনায় ধান চাষে বেশি আগ্রহী হয়েছে কৃষকরা । এ ব্যাপারে উপজেলার আরিফ খা বাসুদেব পুর গ্রামের কৃষক আব্দুল মালেক বলেন, অন্যান্য বারের তুলনায় এবার আমরা অধিকহারে বোরো ধান চাষ করেছি। আশা করছি, এবার বোরো ধানে বাম্পার ফলন হবে। অন্য আরেক কৃষক বলেন ধান গাছে সময়মতো পানি পাওয়ায় এখন গাছ সবুজ বর্ণ ধারণ করেছে। চারিদিকে যেন সবুজের সমারোহ। যেদিকে তাকাই দৃষ্টি যেন জুড়িয়ে যায়। এবার বড় ধরনের ঝড় বা শীলা বৃষ্টি না হলে বোরো ধানের বাম্পার ফলনের সম্ভাবনা রয়েছে। এতে করে আমরা অনেক উপকৃত হব এবং বিগত দিনের ক্ষতি পুষিয়ে নিতে পারব বলে মনে করছি।
কৃষি কর্মকর্তা মোঃ তানজিমুল হাসান বলেন বোরো ধান চাষে কৃষকরা যাতে লাভবান হতে পারেন এবং কৃষকরা যেন বোরো চাষে কোনো প্রকার সমস্যায় না পড়েন এ জন্য আমরা সার্বক্ষণিক নজর রাখছি। যেখানেই সমস্যা সেখানেই আমাদের উপস্থিতি এবং সমস্যা সমাধানে দ্রুত পদক্ষেপ নেয়া হচ্ছে।
এছাড়া অধিক ফলনের জন্য পরিমিত সার ব্যবহার, পানি সাশ্রয় এবং সার্বিক পরিচর্যায় কৃষকদের সচেষ্ট হতে আমরা সব সময়ই পরামর্শ দিয়ে আসছি।

 

 

 

 

 

 

নিউজটি শেয়ান করুন

© All Rights Reserved © 2019
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com