সোমবার, ২০ মে ২০২৪, ০৩:০৯ অপরাহ্ন

শীতের আাগমনে গাইবান্ধায় লেপ-তোষক তৈরীর হিরিক

শীতের আাগমনে গাইবান্ধায় লেপ-তোষক তৈরীর হিরিক

স্টাফ রিপোর্টারঃ গাইবান্ধায় সকালে ঘাসের ডগায় জমা শিশির কণা জানান দিচ্ছে শীতের আগমনী বার্তা। শীতে একটু উষ্ণতা ও আরাম পেতে মানুষ লেপ-কম্বলসহ ভারি পোষাক খুঁজছে। শীতের আগমনী বার্তায় সারাদেশের মতো গাইবান্ধা ব্যতিক্রম নয়।
তাই শীত আসার আগমনী বার্তায় গাইবান্ধা শহরের কাচারী বাজার, পুরাতন জজ কোর্ট চত্বরে ধুম পড়েছে লেপ-তোষক তৈরির। ক্রেতারা ভিড় জমাতে শুরু করেছেন লেপ-তোষকের দোকানে। আর তাই লেপ-তোষক তৈরিতে ব্যস্ত সময় পার করছেন মুন্সিপাড়ার মোহাম্মদ আলী ও অন্যান্য কারিগররা।
সরেজমিন ঘুরে দেখা যায়, শহরের কাচারী বাজার এলাকার পুরাতন জজ কোর্ট চত্বরে লেপ-তোষক তৈরীর ধুনকার সহ কারিগররা। এখন তুলাধুনা, লেপ-তোষক তৈরি ও সেলাইয়ের কাজে বেশ ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছেন। লেপ-তোষকের দোকানগুলোতে বাড়ছে ক্রেতাদের আনাগোনা। সাথে বাড়ছে লেপ-তোষক তৈরির অর্ডার।
লেপ-তোষক তৈরির কারিগর গাইবান্ধা শহরের মুন্সিপাড়ার সাইফুল ইসলাম জানান, দিন যতই গড়াচ্ছে শীতের তীব্রতা ততোই বাড়ছে। বাড়ার আশঙ্কায় সদর উপজেলা সহ বিভিন্ন গ্রামের মানুষ নতুন লেপ-তোষক তৈরি করতে ব্যতিব্যস্ত হয়ে পড়েছে। ভিড় করছেন লেপ-তোষকের দোকান ও আমাদের কারিগরদের করছে। এখন ছোট দিনের বেলা, তাই তিন থেকে চারটি , লেপ তোষকের বেশি তৈরি করা হয়ে ওঠে না।
তিনি আরো জানান, ১৫ বছর হল তিনি ও পেশার সাথে জড়িত। সকাল ৯টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত তিন থেকে ৪টি লেপ- তোষক তৈরি করে ইনকাম করেন ১৫ থেকে ৭শ টাকা। আর এই ইনকাম দিয়ে সচ্চলভাবে চলে যায় তার পরিবারের ৫জন সদস্যর খরচ। বর্ষা মৌসুমে তিনি ছাতা মেরামতের কাজ করেন। রাত হলে অন্ধকার হওয়ায় বেশি লেপ-তোষক তৈরির অর্ডার নেয়া হয়।

Thank you for reading this post, don't forget to subscribe!

 

নিউজটি শেয়ান করুন

© All Rights Reserved © 2019
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com