সোমবার, ২৩ মে ২০২২, ০৭:৪৫ পূর্বাহ্ন

শহরে লকডাউনের অযুহাতে বেড়েছে সবজিসহ নিত্যপণ্যের দাম

শহরে লকডাউনের অযুহাতে বেড়েছে সবজিসহ নিত্যপণ্যের দাম

স্টাফ রিপোর্টারঃ করোনা বিস্তার ঠেকাতে চলমান লকডাউন ও রোজাকে কেন্দ্র করে সবজির চড়া বাজারে উত্তাপ এখনও কমেনি। প্রতিদিনই দাম বাড়ছে। এ সময়ে অস্বাভাবিকভাবে বেড়েছে শসা, বেগুন ও লেবুর দাম। ইফতার উপকরণ হিসেবে এগুলোর চাহিদা থাকায় ব্যবসায়ীরা খুচরা বাজারে দাম বাড়িয়েছেন বলে অভিযোগ ক্রেতাদের। লকডাউনে এমনিতেই আয় রোজগার কমেছে অনেকেরই আর এই সময়ে নিত্যপণ্যের দাম বাড়ায় বিপাকে পড়েছেন নিম্ন ও মধ্যম আয়ের মানুষ। অন্যদিকে নানা অজুহাতে দাম বেড়েছে প্রায় সব ধরনের শাকসবজির দাম। ৪০ টাকার নিচে মিলছে না কোনো সবজি। এ কারণে নাভিশ্বাস বেড়েছে ক্রেতাদের। গতকাল গাইবান্ধা জেলার কয়েকটি কাঁচাবাজার ঘুরে দেখা যায়, সপ্তাহের ব্যবধানে আলু, টমেটো, গোল বেগুন, লম্বা বেগুন, করলা, পটল, লাউ, কাঁচা পেঁপে, শসা, গাজর, সাজনা, বরবটি, চিচিঙ্গা, মিষ্টি কুমড়া, ঝিঙ্গা, কচুর লতি, , ঢেঁড়শ, লাউশাকসহ সব ধরনের শাকসবজির দামই বেড়েছে। এর মধ্যে বেগুন প্রতি কেজি ৪০,আলু ১৮ , শসা ৪০ , ঢেঁড়স ৪০, পটল ৪০,করলা ৩০, কাঁচা মরিচ ৩২, পেঁয়াজ ৩৫, সজনা ৪০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে। এছাড়া সয়াবিন তেল ও বিভিন্ন ডালের দাম আগের চেয়ে অনেক বেশি । গাইবান্ধা হকার্স মার্কেটে বাজার করতে আসা এক বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের এক কর্মচারী জানান, বাজারে সবকিছুর দাম ঊর্ধ্বমুখী । অল্প বেতনের চাকরীতে এই সময়ে এমনিতেই সংসার চালাতে বেগ পেতে হয় তার উপর নিত্যপণ্যের বাজার এতো চড়া হওয়া আমাদের মতো নিম্ন মধ্য আয়ের মানুষদের হিমশিম খেতে হচ্ছে ।
অন্য আরেক ক্রেতা জানান, প্রশাসন শুধু লকডাউন বাস্তবায়নে নজর দিয়েছে বাজার নিয়ন্ত্রণে নজর দেইনি তাই ব্যবসায়ীরা অন্যায় ভাবে জিনিসপত্রের দাম বাড়াচ্ছে ।
গতকাল সকালে পুরাতন বাজারে আশা মানুষের মধ্যে বিধি নিষেধের বালাই নেই । কেউ মাক্স ব্যবহার করছে না। মানুষের গাদাগাধী ভীর পরিলক্ষিত হয়েছে।

নিউজটি শেয়ান করুন

© All Rights Reserved © 2019
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com