বুধবার, ২৮ অক্টোবর ২০২০, ১০:৫৪ পূর্বাহ্ন

মেয়ের অন্নপ্রাশনের দাওয়াত দিতে গিয়ে বাবা চন্দন চন্দ্র লাশ হয়ে বাড়ি ফিরলেন

মেয়ের অন্নপ্রাশনের দাওয়াত দিতে গিয়ে বাবা চন্দন চন্দ্র লাশ হয়ে বাড়ি ফিরলেন

নলডাঙ্গা (সাদুল্লাপুর) প্রতিনিধিঃ  মেয়ের অন্নপ্রাশনের দাওয়াত দিতে গিয়ে বাবা চন্দন চন্দ্র বর্মন (৩৭) নামের এক ব্যক্তি ট্রেনের নীচে কাটা গিয়ে মর্মান্তিক ভাবে মৃত্যুবরন করেছে। গতকাল সোমবার সকাল পৌঁনে ১০ টার সময় লালমনিরহাট ডিভিশনের আওতাধীন সাদুল্লাপুর উপজেলার নলডাঙ্গা রেল ষ্টেশনে এ ঘটনাটি ঘটে। মৃত চন্দন চন্দ্র বর্মন গাইবান্ধা সদর উপজেলার মধ্য বারবলদিয়া গ্রামের সুধির চন্দ্র বর্মনের ছেলে। এ খবর পেয়ে বোনারপাড়া রেলওয়ে থানার উপ-পরিদর্শক মহিদুল ইসলাম সঙ্গীয় ফোর্সসহ দ্রুত ঘটনাস্থলে যান। তিনি স্থানীয় ও প্রত্যক্ষদর্শীদের বরাত দিয়ে ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা লালমনিরহাট আন্তনগর ট্রেনটি লালমনিরহাট অভিমুখে যাওয়ার সময় চন্দন কুমার বর্মন নলডাঙ্গা রেল ষ্টেশনে চলন্ত ট্রেন থেকে ঝাঁপ দিয়ে নামতে গিয়ে ওই ট্রেনে কাটা গিয়ে মারা যান। এ ঘটনায় বোনারপাড়া রেলওয়ে থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা রুজু করা হয়েছে। মামলা নং- ৩০্। পরে লাশের সুরহর্তাল রিপোর্ট প্রস্তুত করা হয়েছে। তবে মৃতের পরিবারের কারো কোন অভিযোগ কিংবা আপত্তি না থাকায় ময়না তদন্ত ছাড়াই তার লাশ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। এ ব্যাপারে মৃত চন্দন চন্দ্র বর্মনের ভাতিজা মৃনাল কান্তি রায় জানান, আগামী ১ সেপ্টেম্বর আমার কাকাতো বোন চন্দনের শিশু কন্যা বৈশাখী রানীর (মুখে ভাত) অন্নপ্রাশনের জন্য দিনক্ষন নির্ধারন করে যাবতীয় আয়োজন সম্পন্ন করা হয়। উক্ত অনুষ্ঠানে আত্নীয় স্বজনকে দাওয়াত দিতে চন্দন চন্দ্র বর্মন খুব সকালে বাড়ি থেকে বের হয়ে যান। এরপর ওইদিন আনুমানিক সকাল ১১টা সময় মোবাইল ফোনে জানতে পারি নলডাঙ্গায় ট্রেন দূর্ঘটনায় তিনি মারা গেছেন।

নিউজটি শেয়ান করুন

© All Rights Reserved © 2019
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com