বুধবার, ১৭ এপ্রিল ২০২৪, ০৫:৩৬ অপরাহ্ন

পলাশবাড়ী রিসোর্স সেন্টারে ১০ বছর কর্মরত থাকায় নানা অনিয়মের আখড়ায় পরিণত

পলাশবাড়ী রিসোর্স সেন্টারে ১০ বছর কর্মরত থাকায় নানা অনিয়মের আখড়ায় পরিণত

পলাশবাড়ী প্রতিনিধিঃ পলাশবাড়ীতে একই ব্যক্তি প্রায় ১০ বছর কর্মরত থাকায় পলাশবাড়ী রিসোর্স সেন্টারটি নানা অনিয়মের আখড়ায় পরিণত হয়েছে। ভুক্তভোগীরা সংশ্লিষ্ট উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।
জানা যায়, পলাশবাড়ী উপজেলা রিসোর্স সেন্টারের সহকারি ইন্সট্রাক্টর সোহেল মিয়া গত ০৬/০৯/২০১৪ সালে পলাশবাড়ী উপজেলায় যোগদান করেন। দীর্ঘদিন একই উপজেলায় কর্মরত থাকায় শিক্ষকদের প্রশিক্ষণে নানা অনিয়মের সৃষ্টি হয়েছে। দীর্ঘদিন থেকেই প্রশিক্ষণার্থীদের শিক্ষক মেটারিয়াম, কলম প্যাড, ব্যাগসহ খাবার ভাতা বরাদ্দের চেয়ে নিম্নমানের সামগ্রী ও খাবার প্রদান করে বাকী টাকা আত্মসাৎ করে আসছে। বর্তমানে এসোশিখি বাংলা বিষয়ক প্রশিক্ষণে একই ব্যক্তি সহায়ক কর্মকর্তা ভাতা ও প্রশিক্ষক ভাতা উত্তোলন করে আসছে মর্মে অভিযোগ উঠেছে। সেইসাথে ইন্সট্রাক্টর রবিউল ইসলাম কর্মকর্তা ভাতা এবং প্রশিক্ষক ভাতা একই ব্যক্তি দুইটি ভাতা উত্তোলন করে আসছেন মর্মে নামপ্রকাশে অনেচ্ছুক প্রশিক্ষণার্থী জানান।
তারা আরও জানায়, সহকারি ইন্সট্রাক্টর সোহেল মিয়ার শ্বশুর বাড়ী এ উপজেলায় হওয়ায় দীর্ঘদিন থেকে একই উপজেলায় চাকুরী করে আসছেন। ফলে পলাশবাড়ী উপজেলা রিসোর্স সেন্টারটি দিন দিন নানা অনিয়ম বৃদ্ধি পেতে শুরু করেছে। ইতিপূর্বে পলাশবাড়ী উপজেলা রিসোর্স সেন্টারের বিভিন্ন অনিয়মের খবর জাতীয় ও আঞ্চলিক পত্রিকায় প্রকাশিত হলেও অদ্যাবধি কোন ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়নি। তাই ভুক্তভোগী প্রশিক্ষণাথী সংশ্লিষ্ট বিভাগের উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

Thank you for reading this post, don't forget to subscribe!

 

নিউজটি শেয়ান করুন

© All Rights Reserved © 2019
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com