বুধবার, ১২ মে ২০২১, ০৭:৩১ পূর্বাহ্ন

পলাশবাড়ী-পীরগঞ্জ উপজেলার সীমান্ত এলাকা বদনাপাড়া নামক স্থানে বাঁধের সিংহভাগ ব্লক ধসে নদী গর্ভে

পলাশবাড়ী-পীরগঞ্জ উপজেলার সীমান্ত এলাকা বদনাপাড়া নামক স্থানে বাঁধের সিংহভাগ ব্লক ধসে নদী গর্ভে

পলাশবাড়ী প্রতিনিধিঃ পলাশবাড়ী-পীরগঞ্জ উপজেলার সীমান্ত এলাকা বদনাপাড়া নামক স্থানে বাংলাদেশ পানি উন্নয়ন বোর্ড, রংপুর বিভাগের অধীনে ৪,২০,৭১,৯৪০,০৩৬ টাকা ব্যয়ে ও বাম তীর প্রতিরক্ষা কাজের সিংগভাগ ব্লক নদী গর্ভে। সরকারী অর্থের অপচয় কে নিবে এর দায়ভার? জনমনে প্রশ্ন। সরেজমিনে গিয়ে এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, রংপুর জেলার মিঠাপুকুর-পীরগঞ্জ ও রংপুর সদর উপজেলার যমুনাশ^রী, ঘাঘট ও করতোয়া তীর সংরক্ষণ ও নদী পূণঃখনন শীর্ষক প্রকল্পের আওতায় পলাশবাড়ী ও পীরগঞ্জ সীমান্ত এলাকায় করতোয়া বাম তীর রক্ষা বদনাপাড়া নামক স্থানে ০ কিঃমিঃ হতে ৪০০ মিটার নদীর তীর প্রতিরক্ষা কাজের জন্য বরাদ্দ হয়। খায়রুল আলম রানা ঠিকাদার প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে ২০/০৩/২০১৯ তারিখে কাজ শুরু করা হয়। ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান কাজের সুবিধার্থে বাঁধের পাশের্^ই নদী থেকে শ্যালো মেশিন দিয়ে বালু উত্তোলন পূর্বক বাঁধ নির্মাণ করায় নদীর পানি বৃদ্ধি হওয়ার সাথে সাথেই কয়েক দফায় ব্লক ধসে নদী গর্ভে চলে যায়। ফলে উক্ত স্থান দিয়ে বন্যার পানি প্রবেশ করে প্রায় ১৪-১৫টি গ্রাম প্লাবিত হয়। এলাকাবাসী জানায় সংশ্লিষ্ট বিভাগের সঠিক তৎপরোতা না থাকায় ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান নিজের কাজের সুবিধার্থে বাঁশের পাশ থেকেই শ্যালো মেশিন দ্বারা বালু উত্তোলন করে বাঁধের কাজ করে যায়। ৩১/০৫/২০২০ তারিখের মধ্যে কাজ সমাপ্ত করার কথা থাকলেও ১৭০ মিটার কাজ এখনও অসমাপ্ত থেকে যায়। ফলে সম্প্রতি বন্যায় উক্ত স্থানের সিংহভাগ ব্লক নদী গর্ভে ধসে গিয়ে ঐ স্থান দিয়ে বন্যার পানি প্রবেশ করে অত্র এলাকার রাস্তাঘাট ও কৃষকদের ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতির হয়ে থাকে। ফলে সরকারী অর্থের অপচয়। কে নিবে এর দায়ভার? এলাকাবাসী দাবী এলাকার কৃষকদের রক্ষার্থে সঠিক তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ ও বাঁধ সংস্কারে সংশ্লিষ্ট উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করছেন ।

 

নিউজটি শেয়ান করুন

© All Rights Reserved © 2019
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com