রবিবার, ০৫ ডিসেম্বর ২০২১, ০৮:০১ পূর্বাহ্ন

পলাশবাড়ী উপজেলা প্রকৌশল দপ্তর ব্যাপক অনিয়ম আর দুর্নীতি আখড়া

পলাশবাড়ী উপজেলা প্রকৌশল দপ্তর ব্যাপক অনিয়ম আর দুর্নীতি আখড়া

স্টাফ রিপোর্টারঃ দীর্ঘদিন থেকে পলাশবাড়ী উপজেলা প্রকৌশলীর প্রকাশ্য সেচ্ছাচারীতার মাধ্যমে সংশ্লিষ্ট দপ্তর এখন ব্যাপক ঘাপলা, অনিয়ম আর দুর্নীতির আখরায় পরিনত হয়েছে।
প্রকাশ, ২০১৯ সালের শেষ প্রান্তে পলাশবাড়ী উপজেলা প্রকৌশলী হিসাবে মোঃ তাহাজ্জদ হোসেন পলাশ উপজেলায় যোগদান করার পর থেকেই বিভিন্ন প্রকল্পের কাজের জন্য টেন্ডার আহ্বান, সিএস করা, ঠিকাদার নির্বাচন এবং কার্যাদেশ প্রদানের ক্ষেত্রে কোন বিধি, নিয়ম নীতির তোয়াক্কা না করে মোটা অংকের উৎকোচ পিসি মানি হস্তগত করে নিম্ন দরের ঠিকাদারকে বাদ দিয়ে উচ্চ দর পত্রের মালিককে ঠিকাদার নির্বাচন ও কার্যাদেশ দিয়ে প্রকল্পের কাজ করছেন। এতে করে এক দিকে সরকারের কোটি কোটি টাকা গচ্ছা যাচ্ছে। অন্যদিকে এসব দুর্নীতি করে ইঞ্জিনিয়ার তাহাজ্জদ হোসেন কোটি টাকা পকেটস্থ করেছেন। এসব বিষয়ে অফিস স্টাফ মুখ খুললেই তাদের উপর প্রশাসনিক খরক নেমে আসে। এসব কাজ করতে অফিসের অনেক ফাইল গোপনে তার আলমারিতে লুকিয়ে রেখেছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। পলাশবাড়ী উপজেলা প্রকৌশল অধিদপ্তর (এলজিইডি) গত ২৭ অক্টোবর ২০২০ ইং তারিখ পলাশবাড়ী উপজেলার হরিনাথপুর প্রাথমিক বিদ্যালয়, বারাইপাড়া প্রাথমিক বিদ্যালয়, রামচন্দ্রপুর প্রাথমিক বিদ্যালয়, নুরপুর প্রাথমিক বিদ্যালয়ের নতুন ভবন নির্মানের জন্য দরপত্র আহ্বান করে নোটিশ প্রদান করে। যার টেন্ডার নং – ০১/ ২০২০ তারিখ ২৭/১০/২০২০- ২০২১। যার আইডি নং যথাক্রমে ৫০২৯৯-৫০৩০০, ৫০৩০১, ৫০৩০২ও ৫০৩০৩।
অপরদিকে গত ১২ নভেম্বর ২০২০ তারিখ উপজেলার রাইতি নরাইল, ফরকান্দাপুর, পশ্চিম নয়নপুর, হরিনবাড়ী ২ নং ও বড় গোবিন্দপুর প্রাথমিক বিদ্যালয় সমূহের নতুন ভবন নির্মানের জন্য দরপত্র আহ্বান করা হয়। যার টেন্ডার নং- ০২/২০২০-২০২১ তারিখ ১২/১১/২০২০-২১ এর আইড নং- যথাক্রমে ৫০৮৭৪৪,৫০৮৭৪৫,৫০৮৭৪৬। দাখিলকৃত দরপত্র যাচাই বাছাই অন্তে নিম্ন দরে দাখিলকৃত দরপত্রের ঠিকারদারকে সংশ্লিষ্ট কাজে ঠিকাদার নির্বাচিত ও কার্যাদেশ দেওয়ার বিধান থাকলেও উপজেলা প্রকৌশলী তাহাজ্জদ হোসেন অধিক পরিমানে পিসি মানি নিয়ে ৪র্থ, ৫ম ও ৬ষ্ঠ তম নিম্ন দরে দাখিল করা দরপেত্রর ঠিকাদারের নামে কার্যাদেশ দিয়ে সরকারের বিপুল পরিমান অংকের অর্থ গচ্ছাসহ নিম্ন দরে দাখিলকৃত দরপত্রের ন্যায্য ঠিকাদারকে বঞ্চিত করা হয়েছে। এ রকম কাজের জন্য একাধিক ঠিকাদার স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তরের প্রধান প্রকৌশলী থেকে উপজেলা চেয়ারম্যান বরাবর অভিযোগপত্র প্রদান করেছেন।
অভিযোগ থেকে আরো জানা গেছে, প্রায় ৫ কোটি টাকা প্রাক্কলিত ব্যয় নির্ধারন পূর্বক পলাশবাড়ী উপজেলা ভবন নির্মানের জন্য দরপত্র আহবান করা হলে দাখিলকৃত দরপত্রের মধ্যে গাইবান্ধা পৌরসভার বর্তমান মেয়র মতলুবুর রহমান নিম্নদরদাতা হিসাবে তালিকাভূক্ত হলেও অধিক পরিমানে পিসি মানি গ্রহন করে বিবি টেডার্স নামে উপজেলা ভবন নির্মান কার্যাদেশ প্রদান করলে ন্যায্য ঠিকাদার মতলুবুর রহমান প্রধান প্রকৌশল বরাবর একটি লিখিত অভিযোগ করেছেন । একই ভাবে ইঞ্জিনিয়ার তাহাজ্জদ হোসেন পশ্চিম রামচন্দ্রপুর প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ভবন নির্মানের ৬ষ্ঠ তম নিম্ন দরদাতা নাদিম টেডার্স, সুলতানপুর বারাই পাড়া প্রাথমিক বিদ্যালয়, রাইপি নরাইল ও বারইপাড়া প্রাথমিক বিদ্যালয়ের নতুন ভবন নির্মানের কাজ ৪র্থ নিম্ন দরদাতা মনি এন্টার প্রাইজ নামের প্রতিষ্ঠানকে কার্যাদেশ প্রদান, বড় গোবিন্দপুর, ফরকান্দাপুর ও নুরপুর ২ং প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ভবন নির্মানের কাজ ৪র্থ নিম্ন দরদাতা সাজিন টেডার্স এবং সুই গ্রাম ও উদয়সাগর প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ভবন নির্মানের কাজ ৫ম নিম্ন দরদাতা মুন্না টেডার্সের নামে কার্যাদেশ প্রদান করে পিসি মানির নামে কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়েছেন । পশ্চিম ঘোড়াবান্দা প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সিমানা প্রাচীর ও গেইট নির্মানে টেন্ডার ও লটারী হওয়ার পর ৫% নিম্ন দরের সাদিত রানা ঠিকাদার নির্বাচিত হলেও কাঙ্খিত পিসি মানি না পাওয়ায় ইঞ্জিনিয়ার কর্তৃক রি-টেন্ডারের ভয় ভিতি দেখানো হচ্ছে বলে সাদিত রানা ঠিকাদার কর্তৃক অভিযোগ পাওয়া গেছে। দুর্নীতির বিষয় গুলো সামান্য পর্যায়েও তদন্ত হলে ইঞ্জিনিয়ার সাহেবের সেচ্ছাচারিতা, অনিয়মও দুর্নীতির বড় কালো বিড়ালটি বেরিয়ে পড়বে।

নিউজটি শেয়ান করুন

© All Rights Reserved © 2019
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com