রবিবার, ২৭ নভেম্বর ২০২২, ০৭:০৪ অপরাহ্ন

পলাশবাড়ীতে ইটভাটায় ২৬’শ ইট উল্টিয়ে পারিশ্রমিক পায় ১০ টাকা

পলাশবাড়ীতে ইটভাটায় ২৬’শ ইট উল্টিয়ে পারিশ্রমিক পায় ১০ টাকা

পলাশবাড়ী প্রতিনিধিঃ পলাশবাড়ী উপজেলায় পরিবেশ অধিদপ্তরের ছাড়পত্র ও লাইসেন্স বিহীন অবৈধভাবে গড়ে উঠা ইটভাটা গুলোতে শিশু শিক্ষার্থীদের দিয়ে ২৬’শ ইট উল্টিয়ে তাদের হাতে দেওয়া হচ্ছে মাত্র ১০ টাকা। এ ব্যাপারে সচেতন এলাকাবাসী প্রশাসনের সু-দুষ্টি কামনা করেছেন। শিশু শ্রম নিষিদ্ধ হলেও জেলার পলাশবাড়ী উপজেলায় বেশ কিছু ইটভাটা মালিকগণ হত-দরিদ্র পরিবারের শিশুদের অভাবের সুযোগ নিয়ে তাদের দিয়ে স্বল্প মূল্যে শিশু শ্রম অব্যাহত রেখেছেন। ইটভাটা গুলোতে রৌদ্রের প্রখর তাপের মধ্যে শুকানোর জন্য ২৬’শ ইট উল্টিয়ে নিয়ে কোমলমতি শিশুর পারিশ্রমিক মেলে মাত্র ১০ টাকা। ১৭ মার্চ দুপুরে সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, ৭নং পবনাপুর ইউনিয়নের নয়নের মাঠ সংলগ্ন বরকাতপুর গ্রামের খোকা মিয়ার এম.এন.বি ইটভাটায় শিশু শ্রমিকদের সাথে কথা বললে জানা যায়, পারবামুনিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ২য় শ্রেণির ছাত্র রাসেল, একই বিদ্যালয়ের (শেষ পাতায় দেখুন)
৪র্থ শ্রেণীর শাহাদত, ৩য় শ্রেণীর জান্নাত মিয়া, ১ম শ্রেণির আলী আকবার জানায়, প্রতিদিন দুপুর ১২টার পর ইট ভাটায় কাজে যোগ দেয় তারা। সন্ধ্যা পর্যন্ত কাজ করে শিশু শিক্ষার্থীদের পারিশ্রমিক মেলে মাত্র ৪০-৫০ টাকা। রাতে বাড়ি ফিরে পারিশ্রমিকের এ টাকা পরিবারের হাতে তুলে দেয় তারা। শিশু শ্রমিকরা আরও জানায়, এই টাকা দিয়ে অনেক সময় কলম-খাতা কিনে নেন তারা। বিদ্যালয় ছুটির পর কিংবা কোনদিন বিদ্যালয়ে না গিয়ে অন্য শিশুদের সঙ্গে ইটভাটায় কাজ করেন এসব শিশু শিক্ষার্থীরা। কোমলমতি এসব শিশুদের দিয়ে ১০-৫০ টাকার বিনিময়ে হাজার হাজার ইট উল্টিয়ে নেওয়ার বিষয়টি সত্যিই অমানবিক বলে অভিমত ব্যক্ত করেন এলাকাবাসী। ইট ভাটায় শিশুদের দিয়ে কেন কাজ করানো হয় এ বিষয়ে এম.এন.বি ভাটার মালিক খোকা মিয়ার নিকট জানতে চাইলে, তিনি দম্ভ করে বলেন শিশুদের দিয়ে কাজ করে নিয়েছি, আপনাদের কত লেখার আছে লেখেন। অপরদিকে ঢোলভাঙ্গা সাকোয়া ব্রীজ সংলগ্ন গড়ে ওঠা খোকন মিয়ার এ.এল.টি ইট ইটভাটায় এসব কাঁচা ইট দুই পাশ উল্টিয়ে রৌদ্রে শুকানোর জন্য নিয়োগ করা হয়েছে কোমলমতি শিশু শিক্ষার্থীদের। সেখানে শিশুরা ২৪’শ ইট উল্টিয়ে পারিশ্রমিক পায় মাত্র ১০ টাকা। এখানে সাকোয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ৫ম শ্রেণির ছাত্র মনিরকে ঐ ইট ভাটায় ইট উল্টাতে দেখা যায়। সচেতন মহলের দাবী বিষয়টি সঠিক তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের জরুরী হস্তক্ষেপ কামনা করছেন।
এ ব্যাপারে পলাশবাড়ী উপজেলা নির্বাহী অফিসার মেজবাউল হোসেন জানান, শিশু শ্রম আইনত নিষিদ্ধ। এ ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট ইটভাটার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে ।

নিউজটি শেয়ান করুন

© All Rights Reserved © 2019
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com