মঙ্গলবার, ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১১:০৫ অপরাহ্ন

পলাশবাড়ীতে ঢাকাগামী কোচে হঠাৎ আগুনঃ যাত্রীদের প্রাণ রক্ষা

পলাশবাড়ীতে ঢাকাগামী কোচে হঠাৎ আগুনঃ যাত্রীদের প্রাণ রক্ষা

পলাশবাড়ী প্রতিনিধিঃ পলাশবাড়ী পৌরশহরের অদূরে ঢাকা-রংপুর মহাসড়কে ফায়ার স্টেশনের মাত্র দেড়শ’ গজ দূরে চলন্ত কোচে অপ্রত্যাশিত অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটে বেশ ক্ষতিসাধন হয়েছে।
ব্যাটারির সংযোগ তার শর্টজনিত কারনে আগুনের সূত্রপাত ঘটে বলে জানা যায়। রাতের ঘোর অন্ধকারে দাউদাউ অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটলেও সৌভাগ্যক্রমে যাত্রী সাধারন প্রাণে রক্ষা পান। তাৎক্ষণিক ফায়ার স্টেশন টীম ঘটনাস্থলে পৌঁছে আগুন নিভাতে সক্ষম হলেও কোচটির সামনের গ¬াচ ভেঙে চুরমার হয়।
এসময় জলন্ত আগুনের লেলিহান শিখা কোচটির পুরো অভ্যন্তর ছড়িয়ে পড়ে ঝলসে গিয়ে ব্যাপক ক্ষতিসাধন হয়। সরেজমিনে ঘটনাস্থলে পৌঁছে কোচ পরিচালনায় নিয়োজিত সুপারভাইজার, ফায়ার স্টেশন জোয়ান,পুলিশ ও যাত্রী সাধারনের সাথে কথা বলে জানা যায়, দোয়েল ক্লাসিক (ঢাকা মেট্রো-ব-১৫-৯৬৩৩) নামীয় কোচটি সন্ধা ৭টার দিকে নীলফামারীর ভবানীগঞ্জ থেকে ৪৩ জন যাত্রী নিয়ে গন্তব্য স্থান ঢাকার জিরানী বাজারের উদ্দেশ্যে ছেড়ে আসে।
পথে গত শুক্রবার রাত পৌণে ১১টায় পলাশবাড়ী পৌরশহরের ফায়ার স্টেশনের অদূরে ঘটে। এসময় উল্লেখিত স্থানে কোচটির ব্যাটারি সংযোগ তার থেকে আগুনের সূত্রপাত ঘটে ইঞ্জিনে আগুন ধরে যায়। কিছু বুঝে উঠার আগেই আকস্মিক আগুন দেখতে পেয়ে চালক কোচটি সড়কের পাশে দার করায়। ভয়াবহ পরিস্থিতি টের পাওয়ায় যাত্রীদের মধ্যে চরম আতঙ্কের সৃষ্টি হয়। তাদের ভীতিকর আত্মচিৎকারে পরিবেশ ভারী হয়ে উঠে। চালক বিপুল মিয়া মুহুর্তের মধ্যে নিচে নেমে যাত্রীদের দ্রুত বেরিয়ে আসতে বলেন।এসময় যাত্রীরা তাদের ব্যাগ-ল্যাগেজ নিয়ে কার আগে কে নামবে এনিয়ে হুমরী খেয়ে অন্ততঃ ১৫ যাত্রী কমবেশি আহত হন। অনেকেরই মূল্যবান মেশিনপত্র মাল-সামানা পুড়ে ছাই হয়ে অপূরনীয় ক্ষতিসাধন হয়।
এদিকে; যাত্রীরা নিচে নেমে আসা শেষ হতে না হতেই কোচটির অটো ব্রেক ফেল করে আপন গতিতেই সড়কের পাশে খাদে তালগাছের সাথে সজোরে ধাক্কা লেগে সম্মুখভাগ দুমড়ে-মুচড়ে যায়। এসময় কোচটির জ্বালানি টাঙ্কি ভেঙে গিয়ে তেল নির্গত হয়ে স্থানটি সয়লাব হয়ে যায়।
কোচটির সুপারভাইজার বেলাল হোসেন জানান, কোচটির ফিটনেস খুউব ভালো। এমন হবার কথা নয়। কোনো না কোনো কারণে ব্যাটারির তার ক্ষতিগ্রস্ত হয়ে এমনটি হয়েছে।
কোচ যাত্রী মোরসালিন জানায়; সৌভাগ্যক্রমে প্রাণে বেচে গেছি। তবে খাদ্যসামগ্রী, পোশাক-পরিচ্ছদসহ মূল্যবান সামগ্রী পুড়ে যায়। অপর এক যাত্রীর কাপড় সেলাইয়ের একটি মেশিন পুড়ে প্রায় অঙ্গার হয়ে যায়। যাত্রীদের অধিকাংশই এমন ক্ষতির কবলে পড়েছেন বলে জানা যায়। তবে ক্ষয়-ক্ষতির প্রকৃত পরিমাণ নিরূপণ সম্ভব না হলেও ভূক্তভোগি দের মতে বেশ ক্ষতি হয়েছে। পলাশবাড়ী থানা অফিসার ইনচার্জ আরজু মোঃ সাজ্জাদ হোসেন জানান, খবর পেয়ে তাৎক্ষণিক জেলা পুলিশের নেতৃত্বে আমিসহ একটি পুলিশ টীম ঘটনা স্থলে পৌঁছে যাত্রী সাধারনের উদ্ধারসহ সবধরনের সহায়তা প্রদান করা হয়। গোবিন্দগঞ্জ হাইওয়ে পুলিশ কোচটি উদ্ধার কাজে নিয়োজিত রয়েছেন।

Thank you for reading this post, don't forget to subscribe!

নিউজটি শেয়ান করুন

© All Rights Reserved © 2019
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com