বৃহস্পতিবার, ২৬ মে ২০২২, ০২:০৭ অপরাহ্ন

পলাশবাড়ীতে অবৈধভাবে রাস্তার গাছ কর্তনে লিখিত অভিযোগ দাখিল

পলাশবাড়ীতে অবৈধভাবে রাস্তার গাছ কর্তনে লিখিত অভিযোগ দাখিল

পলাশবাড়ী প্রতিনিধিঃ পলাশবাড়ীতে গাছখেকো বাহিনী কর্তৃক আনুমানিক ২০ লাখ টাকার রাস্তার দুই পাশের দুই শতাধিক ইউক্লিপটার্স গাছ অবৈধভাবে কর্তনের বিষয়ে জেলা প্রশাসকসহ বিভিন্ন দপ্তরে লিখিত অভিযোগ দাখিল করা হয়েছে।
অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, উপজেলার বরিশাল ইউনিয়নের আমলাগাছী বাজার হতে সাবদিন নয়া বাজার পর্যন্ত ০.৭৫ কিঃমিঃ রাস্তায় বনায়নের সাথে চুক্তিপত্র করে আমলাগাছী দুঃস্থ উন্নয়ন সমিতি ১৬-১৭ বছর পূর্বে রাস্তার দুই পাশে ১ হাজার ইউপ্লিটার্স গাছ রোপন করেন। প্রাকৃতিক দূর্যোগে অধিকাংশ গাছ নষ্ট হয়ে প্রায় ৩ শতাধিক গাছ বড় হয়ে ওঠে। অনুমান ২ বছর পূর্বে সমিতির সভাপতি রাহেলা বেগম উপজেলার বুজরুক বিষ্ণপুর গ্রামের মৃত আবুল হোসেনের ছেলে কাঠ ব্যবসায়ী আতোয়ার রহমানের কাছে বৈধ কাগজপত্র করে গাছ কর্তন করার শর্তে ২ শতাধিক গাছ বিক্রি করেন। কিন্তু নিয়ম না মেনে বৈধ কাগজপত্র ছাড়াই কাঠ ব্যবসায়ী আতোয়ার রহমান বিভিন্ন জায়গায় ম্যানেজ করে ও পেশি শক্তির জোরে গাছগুলো কেটে নিয়ে গেছে।
এ ব্যাপারে আমলাগাছী দুঃস্থ উন্নয়ন সমিতির সভাপতি রাহেলা বেগমের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমি অবৈধভাবে গাছ কর্তনকারী কাঠ ব্যবসায়ী আতোয়ার রহমানের নামে জেলা প্রশাসকসহ বিভিন্ন দপ্তরে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।
উল্লেখ্য, গত কয়েকদিনে উপজেলার বরিশাল ইউনিয়নের আমলাগাছী বাজার হইতে সাবদিন নতুন বাজার পর্যন্ত উপজেলার বুজরুক বিষ্ণপুর গ্রামের মৃত আবুল হোসেনের ছেলে কাঠ ব্যবসায়ী আতোয়ার রহমান এবং সাবদিন গ্রামের কছিম উদ্দিনের ছেলে কাঠ ব্যবসায়ী মুক্তার হোসেন সাবদিন নতুন বাজার হইতে বরিশাল গ্রামের রাস্তার দুই পাশের আনুমানিক ৪০ লাখ টাকা মূল্যের চার শতাধিক ইউক্লিপটার্স গাছ কর্তন করে। এতে করে একদিকে যেমন পরিবেশের ভারসাম্য নষ্ট হচ্ছে অন্যদিকে সরকার এ খাত থেকে বিপুল পরিমান টাকা রাজস্ব হারাচ্ছে।

নিউজটি শেয়ান করুন

© All Rights Reserved © 2019
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com