শনিবার, ১৫ জুন ২০২৪, ০৩:০২ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম
সাদুল্লাপুরে প্রকাশ্যে বিনামূল্যের ভিজিএফ এর চাউল বেচাকেনা সুন্দরগঞ্জে কুরবানীর হাটে পুলিশ-জনতা সংঘর্ষ গ্রেফতার আতঙ্কে চার গ্রামে ঈদের আনন্দ বিষাদে পরিণত পলাশবাড়ীতে চায়না দুয়ারী শয়তান জাল পুড়িয়ে দিলেন অবশেষে গাইবান্ধা প্রেসক্লাব সিলগালা রাজস্ব হারাচ্ছে সরকারঃ জব্দ হওয়া হাজারো যানবাহন খোলা আকাশের নিচে সুন্দরগঞ্জের ভিজিএফ চাল বিতরণ ঈদুল আজহাকে সামনে রেখে কামার সম্প্রদায় চাকু-ছোড়া ও বটির বানাতে ব্যস্ত সময় পাড় করছে খোলাহাটিতে আগুনে ৫ দোকান পুড়ে ছাই সুন্দরগঞ্জে পশুরহাটে পুলিশ জনতা-সংঘর্ষে ৪ রাউন্ড গুলি বর্ষন পুলিশসহ আহত ১০ গাইবান্ধা পৌর এলাকায় অপরিকল্পিত ভাবে কৃষি জমিতে বাড়ী নির্মান

ধাপেরহাটে অসহায় পরিবারের হুমকির মাঝে দিনাতিপাত

ধাপেরহাটে অসহায় পরিবারের হুমকির মাঝে দিনাতিপাত

ধাপেরহাট (সাদুল্লাপুর) প্রতিনিধিঃ সাদুল্লাপুরের ধাপেরহাটে একটি সংখ্যালঘুর বাড়িতে হামলা চালিয়েছে একদল ভূমিদস্যু। মুহূর্তে ঘরবাড়ি ভাংচুর ও লুটের তা-বলীলা চলছিল সেখানে। নিমিশে তছনছের শিকার হয়ে সর্বশান্ত হয় পরিবারটি। এখন গৃহাভাবে খোলা আকাশের নিচে বিছানাপত্র পেতে রাত্রি যাপন করছে । সেখানে চরম আতঙ্ক আর অশ্রুজলে নির্ঘুম রাত কাটছে তাদের।
সরেজমিনে জানা যায়, সাদুল্লাপুর উপজেলার ধাপেরহাট বন্দরের গোবিন্দপুরে ভুক্তভোগি পরিবারটির নানা আর্তনাদ ও আহাজারির দৃশ্য। সংবাদকর্মী দেখে হাউমাউ করে কেঁদে উঠেছিলেন শ্যামরাজী, মধু, রূপা ও শুকরুসহ আরো অনেকে।
স্থানীয় সুত্রে জানা যায়, ওই উপজেলার ধাপেরহাট ইউনিয়নের গোবিন্দপুর গ্রামের মৃত লালচান চন্দ্র দাসের ছেলে সুকেন চন্দ্র দাস। এই পরিবারটি সংখ্যালঘু হওয়ায় তাদের বাস্তুভিটা টুকু দখলের পায়তারা করছিল ওই এলাকার সন্ত্রাসি প্রকৃতির একদল ভূমিদস্যু। এই দস্যুরা পার্শ্ববর্তী হাসানপাড়া গ্রামের এসসাম ইসলাম, মইনুল, আয়নাল, টিটুল, মিঠুল ও বাটকারুসহ অনেকে। এরই একর্যায়ে গত ২৭ মে গভীর রাতে সুকেন চন্দ্র দাসের বাড়িতে হামলা চালায় হাসানপাড়ার মৃত আব্দুল জলিলের ছেলে এসসাম ইসলাম ও তার দলবলেরা। এ দলের হাতের অস্ত্র-লাঠির তা-বে ঘরবাড়ি-আসবাপত্র-ফ্রিজ ও অন্যান্য জিনিসপত্র ভাঙচুর করে। এসময় লুট করে নিয়ে যায় স্বর্ণালংকার ও নগদ টাকা।
বিদ্যমান পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে ঘটনাস্থলে ছুটে আসেন এসপি, ইউএনও, ওসি ও স্থানীয় জনপ্রতিনিধিরা। অপরাধীদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়ার আশ্বাস দেন তারা। তাদের নিরাপত্তায় মোতায়েন করা হয় গ্রাম পুলিশ।
এরপর ভূক্তভোগি সুকেন চন্দ্রের স্ত্রী রূপা দাস বাদি হয়ে সাদুল্লাপুর থানায় একটি মামলা দায়ের করে। সম্প্রতি আসামিরা জামিনে এসে হাসানপাড়া গ্রামের আয়নাল হকের পুত্র সুরুজ মিয়ার মদদে বাদি পরিবারকে প্রাণ নাশের হুমকি দেওয়া হচ্ছে মর্মে ভূক্তভোগিদের অভিযোগ উঠেছে। তাই জীবনের নিরাপত্তা চেয়ে গত ৮ জুন আরও একটি জিডি করেন রূপা দাস।
এ সব তথ্য নিশ্চিত করে সুকেন চন্দ্র দাস মধু বলেন, এখন আর বাড়ি পাহাড়ায় গ্রাম পুলিশ নেই। তাই রাত হলেও আসামিরা ইট-পাটকেল দিয়ে ঢিল মারে, অপরিচিত মানুষের আনা গোনা দেখা যাচ্ছে। আসামীরা বিভিন্নভাবে আমাদেরকে জোরপূর্বক উচ্ছেদের পায়তারা করছে এবং অব্যাহত হুমকির ভয়ে কোথাও বের হতে পারছিনা। এছাড়া ভাংচুর করা ঘরগুলো অর্থাভাবে পুনঃনির্মাণ করতে না পেরে শিশু সন্তানসহ পরিবারের সবাই খোলা আকাশের নিচে বসবাস করছি। তাই আইন প্রয়োগকারীদের নিকট সুষ্ঠু বিচার দাবি জানাচ্ছি। এ বিষয়ে আসামি এসসাম গাছু ওরফে ইসলামগংদের সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও তাদের বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

Thank you for reading this post, don't forget to subscribe!

নিউজটি শেয়ান করুন

© All Rights Reserved © 2019
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com