সোমবার, ২৩ মে ২০২২, ০৮:৪২ পূর্বাহ্ন

ধাপেরহাটে অপহরনের ৬ মাস পর স্কুল ছাত্রী উদ্ধার

ধাপেরহাটে অপহরনের ৬ মাস পর স্কুল ছাত্রী উদ্ধার

ধাপেরহাট (সাদুল্লাপুর) প্রতিনিধিঃ সাদুল্লাপুর উপজেলার ধাপেরহাট চকনদী গ্রামের ৮ম শ্রেণিতে পড়–য়া ছাত্রী অপহরনের ৬ মাস পর গত শুক্রবার দুপুরে ঢাকা গাজীপুর এলাকা থেকে উদ্ধার করেছে পুলিশ। এসময় স্কুল ছাত্রী অপহরনের মুল হোতা সাবু মিয়া গ্রেফতার। পুলিশ জানান, গত ১২ আগষ্ট/২১ সন্ধায় চকনদী গ্রামের জবেনুল মিয়ার কন্যা তিলকপাড়া তফেজান নেছা দাখিল মাদরাসার ৮ম শ্রেণিতে পড়–য়া ছাত্রী ভিকটিম জাহানারা আক্তার জিনিয়াকে একই গ্রামের আনছার আলীর পুত্র বখাটে যুবক সাজু মিয়া বাড়ীর পাশ্বে রাস্তা থেকে জোরপূর্বক সি,এন,জিতে তুলে অপহরন করে নিয়ে যায়। অনেক খোজা খুজি করেও তাকে না পেয়ে জিনিয়ার পিতা জবেদুল মিয়া সাবুর পিতা মাতাসহ ৩জনকে আসামী করে সাদুল্লাপুর থানায় একটি অপহরন মামলা দায়ের করে। যাহার নং- ১১/২১। মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ধাপেরহাট পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ সেরাজুল হক তথ্য প্রযুক্তির মাধ্যমে অপহরনকারীকে খুজতে থাকে। এক পর্যায়ে গতকাল শুক্রবার ঢাকা গাজীপুর এলাকার মেট্রোগাছা থানাধীন কুনিয়া এলাকার একটি বেতের কারখানা থেকে আসামী সাবু মিয়াকে গ্রেফতার করে এবং তার দেয়া তথ্যমতে পাশের একটি বাসা থেকে অপহৃতা স্কুল ছাত্রী জিনিয়াকে উদ্ধার করেন। জিনিয়ার অবিভাবক জানান, বখাটে সাজু জিনিয়া মাদরাসায় যাতাযাতের পথে প্রায়ই তাকে রাস্তায় উত্যাক্ত করে প্রেম প্রস্তাব দিত। জিনিয়া বিষয়টি তার অভিভাবকদের জানালে সাবু বেপরোয়া হয়ে ওঠে এবং এরই জের ধরে জিনিয়াকে জোরপূর্বক অপহরন করে ঢাকায় নিয়ে যান। মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ইনচার্জ সেরাজুল হক ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান, তথ্যপ্রযুক্তির মাধ্যমে অপহরনের মুলহোতা সাবু’কে গ্রেফতার পূর্বক ভিকটিমকে উদ্ধার করা হয়েছে এবং আসামীকে গাইবান্ধা জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে। ভিকটিমকে ডাক্তারী পরীক্ষার জন্য গাইবান্ধা সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

নিউজটি শেয়ান করুন

© All Rights Reserved © 2019
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com