বুধবার, ২৯ মার্চ ২০২৩, ০৭:৩১ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম
শিক্ষা ব্যাবস্থা উন্নত আধুনিক ও শিক্ষার মান উন্নয়নের কৃতিত্ব একমাত্র প্রধানমন্ত্রীর -মাহমুদ হাসান রিপন এমপি সুন্দরগঞ্জে সাব প্রাণী সম্পদ কল্যাণ কেন্দ্রের বেহালদশাঃ গ্রাম গঞ্জে পশু ডাক্তারের নামে হাতুড়ে ডাক্তারের ছড়াছড়ি গাইবান্ধায় আওয়ামীলীগের ঐতিহাসিক ৭ ই মার্চ উদযাপন সাঘাটায় রেকর্ডভুক্ত জমিতে ব্রীজ নিমার্ণ কাজে বাধাঁ প্রদান করায় ঠিকাদার কর্তৃক থানায় অভিযোগ কলেজপাড়ায় পৌর নাগরিকদের সভা নলডাঙ্গায় নবীন ও বসন্ত বরণ অনুষ্ঠান গাইবান্ধায় স্মার্ট বাংলাদেশ বিনির্মাণে মতবিনিময় সভা গাইবান্ধায় মহিলা আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালন গোবিন্দগঞ্জে সরকারি বই বিক্রিকালে জনতার হাতে শিক্ষক-কর্মচারী আটক দারিয়াপুরে বাম জোটের সমাবেশ অনুষ্ঠিত

গোবিন্দগঞ্জে সরকারি বই বিক্রিকালে জনতার হাতে শিক্ষক-কর্মচারী আটক

গোবিন্দগঞ্জে সরকারি বই বিক্রিকালে জনতার হাতে শিক্ষক-কর্মচারী আটক

গোবিন্দগঞ্জ প্রতিনিধিঃ গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার হরিরমাপুর বুড়িরভিটা আনন্দ বাজার থেকে গত রোববার সন্ধ্যায় মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সরকারি বই বিক্রিকালে জনতা কর্তৃক আটক করার ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনা ধামাচাপা দিতে সম্পৃক্ত শিক্ষিকাকে বইগুলো বিদ্যালয়ে ফিরে নিতে নির্দেশ দিয়েছেন উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা। বিক্রি দন্ডনীয় অপরাধ হলেও কর্তৃপরে দায়সারা বক্তব্যে স্থানীয় জনতার মধ্যে মিশ্র প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি হয়েছে।
জানা গেছে, উপজেলার হরিরামপুর বালিকা দ্বি-মুখী বিদ্যালয়ের নৈশ প্রহরী উত্তম কুমার ও জুনিয়র শিকিক্ষা (প্রধান শিক্ষক দাবিদার) চামেলি বেগম ২০২২ শিাবর্ষের বস্তাভর্তি ৪২৭ পিস বই বিক্রির জন্য শাহজাহান শেখের ভাংরির দোকানে আনেন। বইগুলো ওজন করাকালে সাধারণ জনগণ বুঝতে পেলে ওই প্রহরী ও শিকিক্ষা সটকে পড়ে। পরে স্থানীয় ইউপি সদস্য ফিরোজ কবিরকে অবহিত করলে ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে বইগুলো জব্দ করেন।
পরবর্তীতে চামেলি বেগমকে ডেকে এনে কথা বললে তিনি বলেন, বিদ্যুৎ বিল ও সাউন্ড বক্স মেরামত করার জন্য গুদাম পরিষ্কার করে উদ্বৃত্ত ২০২২ শিক্ষাবর্ষের বইগুলো বিক্রির জন্য পাঠিয়েছি। এসময় তিনি আরও জানান, মাধ্যমিক স্যার বইগুলো স্কুলে নিতে যেতে বলেছেন।
এ ব্যাপারে মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা শাহ আলম পারভেজ বলেন, বইগুলো বিদ্যালয়ে নিয়ে যাক, পরে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। তার এমন বক্তব্যে উপস্থিত জনতা মিশ্র প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেন। উপস্থিত লোকজন ও সাংবাদিকরা জেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা রোকসানা বেগমকে বিষয়টি অবগত করলে তিনি জানান, সুন্দরগঞ্জের ঘটনায় জড়িতদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। গোবিন্দগঞ্জের ঘটনাতেও আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।
বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শরিফুল ইসলামের সাথে কথা বললে তিনি জানান, চামেলি বেগমের স্বামী অত্র বিদ্যালয়ের সাবেক প্রধান শিক্ষক এবং বর্তমানে সভাপতি হওয়ার লক্ষ্যে আদালতের আশ্রয় নিয়েছেন। তিনি সেই মামলাজনিত কারণে বর্তমানে ঢাকায় অবস্থান করছেন। রাতে অফিস সহকারীর মারফত বিষয়টি জেনেছেন। এটি কারোরই কাম্য নয়। তিনি ফিরে এসে ঊর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের সম্মতিতে প্রয়োজনীয় পদপে গ্রহণ করব।

নিউজটি শেয়ান করুন

© All Rights Reserved © 2019
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com