মঙ্গলবার, ২৪ নভেম্বর ২০২০, ০৯:০৩ অপরাহ্ন

গোবিন্দগঞ্জে প্রতিপক্ষের হামলায় বৃদ্ধা গুরুতর আহত বাড়িঘর ভাংচুর, লুটপাট

গোবিন্দগঞ্জে প্রতিপক্ষের হামলায় বৃদ্ধা গুরুতর আহত বাড়িঘর ভাংচুর, লুটপাট

গোবিন্দগঞ্জ প্রতিনিধিঃ গোবিন্দগঞ্জে পূর্বশত্রুতার জের ধরে প্রতিপক্ষরা হামলা চালিয়ে বাড়িঘর ভাংচুর, লুটপাট ও মছিমা বেগম (৬০) নামের বৃদ্ধাকে গুরুতর আহত করেছে। এ ঘটনায় গোবিন্দগঞ্জ থানায় একটি এজাহার দায়ের করা হয়েছে।
এজাহার সূত্রে জানা গেছে, গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার কোচাশহর ইউনিয়নের ধর্মা গ্রামের মৃত তোফাজ্জল সরদারের ছেলে মুকুল মিয়া বিদেশ থাকার কারণে তার বৃদ্ধা মা মছিমা বেগম ছেলের বাড়ী-ঘর ও সহায় সম্পত্তি দেখাশোনা করে। পার্শ্ববর্তী বাড়ির ময়নূল ইসলাম সরদার (৪০) ও তার ভাই মঞ্জুরুল ইসলাম সরদার(৩৮) ওই সম্পত্তি ও ঘরবাড়ি দখলের পায়তারায় বৃদ্ধা মছিমাকে বিভিন্ন সময় ভয়-ভীতি ও প্রাণনাশের হুমকী দিয়ে আসছিল। এরই এক পর্যায়ে গত ১৩ জুলাই সোমবার বিকেল ৪টার দিকে ময়নূল ও মঞ্জুরুলের নেতৃত্বে একই গ্রামের রফিকুল গাছু এবং আব্দুল কাফি গাছুসহ একদল সন্ত্রাসী লাঠি-সোটা ও ধারালো অস্ত্র নিয়ে অতর্কিত ভাবে হামলা চালিয়ে ওই বাড়ির ঘর ও আসবাবপত্র ভাংচুর করে। এ সময় মছিমা বেগম বাঁধা দিলে সন্ত্রাসীরা তাকে এলোপাথারী মারপিট করে আহত করে এবং স্টিলের আলমারি থেকে নগদ ১ লক্ষ টাকাসহ ৫০ হাজার টাকার মালামাল লুট করে নিয়ে যায়। মছিমার চিৎকারে আশপাশের লোকজন এগিয়ে এসে গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে সেখান থেকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে দেয়। এ ঘটনায় মছিমা বেগম বাদি হয়ে সন্ত্রাসী ময়নূল ও মঞ্জুরুলসহ ৬ জনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাতনামা ২/৩ জনের বিরুদ্ধে গোবিন্দগঞ্জ থানায় একটি এজাহার দায়ের করেছেন।
হাসপাতালে চিকিৎসাধীন বৃদ্ধা মছিমা বেগম বলেন, থানায় এজাহার দেয়ায় ক্ষিপ্ত হয়ে ময়নুল ও মঞ্জুরুলসহ প্রতিপক্ষরা তাকে ভয়-ভীতি প্রদর্শন ও প্রাণনাশের হুমকী প্রদান করছে।
মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা গোবিন্দগঞ্জ থানার এসআই সজিব মিয়া জানান, এ ঘটনায় এজাহার দায়েরের পর আমি ঘটনাস্থল পরিদর্শন ও হাসপাতালে আহত বৃদ্ধার জবানবন্দী নিয়েছি।

নিউজটি শেয়ান করুন

© All Rights Reserved © 2019
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com