মঙ্গলবার, ২৫ জুন ২০২৪, ০২:৩৬ পূর্বাহ্ন

গাইবান্ধায় স্থানীয় যুবকদের ব্যক্তিগত উদ্যোগে প্রায় ৩ যুগ পর একটি গ্রামের চলাচলের রাস্তা নির্মাণ

গাইবান্ধায় স্থানীয় যুবকদের ব্যক্তিগত উদ্যোগে প্রায় ৩ যুগ পর একটি গ্রামের চলাচলের রাস্তা নির্মাণ

স্টাফ রিপোর্টারঃ গাইবান্ধা সদর উপজেলার খোলাহাটি ইউনিয়নের কিশামত বালুয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় সংলগ্ন কিশামত বালুয়া গ্রামের ৪০টি পরিবারের যাতায়াতের রাস্তা না থাকায় দীর্ঘদিন ধরে চলাচল করতে দুর্ভোগ পোহাতে হয়। বুধবার স্থানীয় যুবকদের উদ্যোগে প্রায় ৩ যুগ পর ভেকু দিয়ে মাটি কেটে চলাচলের রাস্তা নির্মাণ করা হয়েছে।
খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, কিশামত বালুয়া গ্রামের ৪০টি পরিবারের যাতায়াতের রাস্তা না থাকায় তাদের চলাচল করতে নানা রকম দুর্ভোগ পোহাতে হয়। শুধু তাই নয়, বন্যার সময় ওই পরিবারগুলোকে কলার গাছের ভেলা ও নৌকা দিয়ে অতিকষ্টে যাতায়াত করতে হয়। ওইসব মানুষের চলাচলের দুর্ভোগ দেখে ইউপি সদস্য আশরাফুল ইসলাম লুডু, প্রকৌশলী শামীম প্রামানিক বাদল, পল্লী চিকিৎসক আব্দুল লতিফ, হানিফ মন্ডল, মধু মিয়ার ব্যক্তিগত উদ্যোগে ও স্থানীয় যুবকদের সহযোগিতায় রাস্তাটি নির্মাণের জন্য উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়। তাদের এই উদ্যোগের ফলে ভেকু দিয়ে মাটি কেটে রাস্তাটি সম্পুর্ণ নতুন করে নির্মাণ করা হয়।
এব্যাপারে প্রকৌশলী শামীম প্রামানিক বাদল জানান, এলাকাবাসি দীর্ঘদিন ধরে বিভিন্ন দপ্তরে আবেদন করলেও রাস্তাটি নির্মাণের কেউ কোন উদ্যোগ নেয়নি। তাই এলাকার যুবকদের সাথে নিয়ে রাস্তাটি নির্মাণ করা হয়েছে। ওই গ্রামের বাসিন্দা বেলাল হোসেন, হযরত আলী, মিলন মিয়া, আব্দুল জোব্বার, আলমগীর হোসেনের সাথে কথা বললে তারা জানান, এখন আর বন্যার মধ্যে তাদেরকে কষ্ট করে কলার গাছের ভেলা দিয়ে চলাচল করতে হবে না। রাস্তাটি নির্মাণ করে দেয়ায় আমাদের খুব উপকার হয়েছে। এই রাস্তাটি নির্মাণ হওয়ায় এখন আমরা সবাই ভ্যান-রিক্সাসহ যানবাহন নিয়ে চলাচল করতে পারবো।

Thank you for reading this post, don't forget to subscribe!

নিউজটি শেয়ান করুন

© All Rights Reserved © 2019
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com