বৃহস্পতিবার, ০৯ ডিসেম্বর ২০২১, ০৯:৩১ পূর্বাহ্ন

গাইবান্ধায় ভ্যাপসা গরমে জনজীবনে হাঁসফাঁস বেড়েই চলছে

গাইবান্ধায় ভ্যাপসা গরমে জনজীবনে হাঁসফাঁস বেড়েই চলছে

স্টাফ রিপোর্টারঃ গ্রীষ্মের খরতাপে পুড়ছে প্রকৃতি । দিনের শুরু থেকেই বাড়তে শুরু করে তাপমাত্রা । প্রচ- রোধ আর ভ্যাপসা গরমে হাঁসফাঁস হয়ে পড়েছে জনজীবন। আবহাওয়া অধিদপ্তর পূর্বাভাস অনুযায়ী আগামী ২৬ থেকে ২৭ মে ইয়াস নামে একটি ঘূর্ণিঝড় হওয়ার সম্ভাবনাও আছে। গাইবান্ধা জেলায় ভ্যাপসা গরমে জন জীবন ওষ্ঠাগত । গত মার্চ মাস থেকে এ জেলায় বৃষ্টি হয়েছে খুবই কম ।
সপ্তাহখানেক ধরে তাপমাত্রা থাকছে ৩৫ থেকে ৪০ ডিগ্রি সেলসিয়াসের মধ্যে। এই তাপমাত্রাতেও সমস্যা হতো না যদি স্বাভাবিক বৃষ্টিপাত হতো। বৃষ্টিপাত না হওয়ায় ভূপৃষ্ঠে পুঞ্জীভূত তাপ বাড়িয়ে দিয়েছে গরমের অনুভূতি । ভ্যাপসা গরমে শ্রমজীবী মানুষের কষ্ট হয়ে উঠেছে অসহনীয়। যেমন রিকশাচালক, ভ্যান বা ঠেলাগাড়ি চালক তীব্র রোদ আর গরমের কারণে স্বাভাবিক কাজ করতে পারছেন না।
গাইবান্ধা সদর উপজেলা পরিষদের পুকুরে দেখা যায় কয়েকজন কিশোর গোসল করছে এসময় তারা জানান বাইরে প্রচুর গরম তাই বন্ধুরা মিলে পুকুরে গোসল করছি । প্রচ- দাবদাহ থেকে বাঁচতে করণীয় জানতে চাইলে গাইবান্ধা জেলা হাসপাতালের মেডিসিন বিশেষজ্ঞ আনসার আলী জানান, প্রচ- গরমে আমাদের শরীর থেকে অনেক ঘাম ঝড়ে। শরীর থেকে অনেক পানি বের হয়ে যায়। তাই বেশি করে পানি খাওয়া উচিত। যারা শ্রমজীবী এবং খেটে খাওয়া মানুষ তারা যেন কাজের মাঝে বিশ্রাম নেয়। টানা বেশি সময় যেন রোদে না থাকে। খুব বেশি খারাপ লাগলে খাবার স্যালাইন খাবে, দ্রুত গাছের ছায়া বা ঠা-া স্থানে চলে যাবে। যেহেতু গরমে শরীর খুব ঘামে তাই খাবার স্যালাইন এই সময় খুব উপকারী।

নিউজটি শেয়ান করুন

© All Rights Reserved © 2019
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com