শনিবার, ২০ এপ্রিল ২০২৪, ১০:১০ পূর্বাহ্ন

গাইবান্ধার উপর দিয়ে চালু হলো বুড়িমারী এক্সপ্রেস

গাইবান্ধার উপর দিয়ে চালু হলো বুড়িমারী এক্সপ্রেস

স্টাফ রিপোর্টারঃ উত্তরাঞ্চলে রেল যোগাযোগে আন্তঃনগর ট্রেন লালমনি এক্সপ্রেস এবং আন্তঃনগর রংপুর এক্সপ্রেসের পর এবার আন্তঃনগর বুড়িমারী এক্সপ্রেস নামে একটি নতুন ট্রেন যোগ হচ্ছে গাইবান্ধাবাসীদের জন্য। গাইবান্ধার যাত্রীদের ভোগান্তি কমাতে ১৪টি কোচের এই ট্রেনটি চালু হয়েছে গতকাল মঙ্গলবার থেকে।
গাইবান্ধা রেল স্টেশনের স্টেশন মাস্টার আবুল কাশেম বলেন, গতকাল মঙ্গলবার থেকে বুড়িমারী এক্সপ্রেস চালু হয়। সারাদেশেই ইতোমধ্যে অনলাইনে টিকিট বিক্রি শুরু হয়েছে। ট্রেনটি গাইবান্ধার ওপর দিয়ে চলাচলের খবরে সন্তোষ প্রকাশ করেছেন জেলার যাত্রীরা, সচেতন মহল এবং আন্দোলনকারীরা।
রেলের সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, বুড়িমারী এক্সপ্রেস ৮০৯/৮১০ নম্বর ট্রেনটি একটি খ শ্রেণির আন্তঃনগর ট্রেন। ১৪টি কোচের এ ট্রেনের মোট আসন সংখ্যা ৬৫৩টি।
ঢাকা কমলাপুর স্টেশন থেকে ছেড়ে আসা বুড়িমারী-৮০৯ নম্বর ট্রেনটি যাত্রা বিরতি করবে ঢাকা বিমানবন্দর স্টেশন, ঈশ্বরদী বাইপাস, নাটোর, সান্তাহার, বগুড়া, বোনারপাড়া, গাইবান্ধা, কাউনিয়া, লালমনিরহাট, তুষভান্ডার, হাতিবান্ধা, বড়খাতা ও পাটগ্রাম রেল স্টেশনে।
অন্যদিকে বুড়িমারী থেকে ছেড়ে যাওয়া ৮১০ নম্বর ট্রেনটি পাটগ্রাম স্টেশন বড়খাতা, হাতিবান্ধা, তুষভান্ডার, লালমনিরহাট, কাউনিয়া, গাইবান্ধা, বোনারপাড়া, বগুড়া, সান্তাহার, নাটোর ও ঢাকা বিমানবন্দর রেল স্টেশনে যাত্রা বিরতি করবে।
লালমনিরহাটের পাটগ্রাম উপজেলার বুড়িমারী রেলস্টেশন থেকে অবশেষে যাত্রা শুরু করলো দীর্ঘদিনের কাঙ্ক্ষিত বুড়িমারী এক্সপ্রেস ট্রেন। এতে লালমনিরহাট জেলার কয়েক লাখ মানুষের কম খরচে ঢাকার সঙ্গে নতুন যোগাযোগ স্থাপন হলো। গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে আনুষ্ঠানিকভাবে বুড়িমারী রেলওয়ে স্টেশন থেকে বুড়িমারী-ঢাকা রুটে ফিতা কেটে ট্রেনটির উদ্বোধন করেন লালমনিরহাট-১ আসনের সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা মোতাহার হোসেন এমপি। এ সময় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, লালমনিরহাট-২ আসনের সংসদ সদস্য ও সাবেক সমাজকল্যাণ মন্ত্রী নুরুজ্জামান আহমেদ, লালমনিরহাট-৩ আসনের সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট মতিউর রহমান, বাংলাদেশ রেলওয়ের রাজশাহী পশ্চিম ব্যবস্থাপক অসীম কুমার তালুকদার। উপস্থিত ছিলেন লালমনিহাট জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ উল্যাহ ও পুলিশ সুপার মোহাম্মদ সাইফুল ইসলাম, পাটগ্রাম উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান রুহুল আমিন বাবুল ও পাটগ্রাম উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি পূর্ণ চন্দ্র রায়। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন লালমনিরহাট বিভাগীয় রেলের ব্যবস্থাপক আব্দুস সালাম। বুড়িমারী রেলস্টেশন থেকে ট্রেনটি চালু হওয়ায় নতুন করে ভারত, ভুটান, নেপালের পাসপোর্টধারী যাত্রীদের সঙ্গে যোগাযোগ স্থাপন হলো। সেইসঙ্গে আর্থ সামাজিক উন্নয়নের পাশাপাশি ঘটবে অর্থনৈতিক বিপ্লব। ট্রেনটি যাত্রা শুরু করায় লালমনিরহাটের পাটগ্রাম, হাতীবান্ধা, কালিগঞ্জসহ জেলার ৫ উপজেলার কয়েক লাখ মানুষের ঢাকার সঙ্গে যোগাযোগের নতুন দ্বার উন্মোচিত হলো। ট্রেনটি বুড়িমারী থেকে ঢাকার পথে ১১টি স্টেশনে থামবে আর ঢাকা থেকে বুড়িমারীতে ফেরার পথে ১২টি স্টেশনে থামবে। পাটগ্রাম উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান রুহুল আমিন বলেন, আমাদের দাবি অতি দ্রুত বুড়িমারী রেলস্টেশনের নির্মাণ কাজ শেষ করে বুড়িমারী এক্সপ্রেস ট্রেনটি বুড়িমারী রেল স্টেশনের থেকে চলাচল করুক। বাংলাদেশ রেলওয়ের রাজশাহী পশ্চিম ব্যবস্থাপক অসীম কুমার তালুকদার বলেন, বুড়িমারী রেলস্টেশনে ওয়াস পিড নির্মাণ না হওয়া পর্যন্ত লালমনিরহাট রেলস্টেশন থেকে বুড়িমারী এক্সপ্রেস ট্রেনটি ঢাকার উদ্দেশে ছেড়ে যাবে।

Thank you for reading this post, don't forget to subscribe!

নিউজটি শেয়ান করুন

© All Rights Reserved © 2019
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com