মঙ্গলবার, ২১ মে ২০২৪, ০৯:১৮ পূর্বাহ্ন

গাইবান্ধার অতুলনীয় রসমঞ্জুরী

গাইবান্ধার অতুলনীয় রসমঞ্জুরী

স্টাফ রিপোর্টারঃ গাইবান্ধার তৈরি রসমঞ্জুরী মিষ্টান্ন যাচ্ছে দেশ পেরিয়ে বিদেশে। ইতোমধ্যে রসমঞ্জুরী জেলা নামেও গাইবান্ধা পরিচিত লাভ করছে বিভিন্ন জায়গায়। জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের এ-টু-আই প্রজেক্টের মাধ্যমে রসমঞ্জুরীকে জেলা ব্রান্ডডিং পণ্য করার সুপারিশ করা হয়েছে। স্বাদ ও গুণাগুণের কারণে গাইবান্ধার রসমঞ্জরীর রয়েছে আলাদা সুনাম।
১৯৪০ সালে শহরের সার্কুলার রোডে রমেশ চন্দ্র ঘোষ প্রথম ব্যবসায়িকভাবে রসমঞ্জুরী উৎপাদন শুরু করেন। অল্প সময়ের মধ্যে জেলার গ-ি পেরিয়ে সারাদেশে সুনাম ও পরিচিতি ছড়িয়ে পড়ে।
রমেশ মিষ্টান্ন ভান্ডার ম্যানেজার জানান, শুধু গাইবান্ধাতেই নয়, ঢাকাসহ বিভিন্ন জেলায় রসমঞ্জুরী মিষ্টান্ন পাঠানো হয়। এমনকি বিদেশে পাঠানোর জন্য কিনেন অনেকে।
স্বাদে অতুলনীয় উত্তরবঙ্গের মধ্যে বিখ্যাত এ রসমঞ্জুরী বাড়ি নিয়ে যাওয়ার জন্য আসেন কেউ কেউ। ভেজালমুক্ত হওয়ায় এ রসমঞ্জুরী নিয়মিত খেয়ে খুশি স্থানীয়রা। রসমঞ্জুরী তৈরির উপকরণে রয়েছে গরুর খাঁটি দুধ, ছানা, চিনি ও ছোট এলাচ।
গাইবান্ধা জেলায় উৎপাদিত পণ্যের মধ্যে রসমঞ্জুরীকে ব্রান্ডডিং পণ্য করার জন্য প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের এ-টু-আই প্রজেক্টের মাধ্যমে সুপারিশ করেছেন জেলা প্রশাসক।
বর্তমানে জেলার কয়েকটি হোটেল ও রেস্টুরেন্টে রসমঞ্জুরী পাওয়া যায়। যার প্রতি কেজি ২৮০ থেকে ৩০০ টাকা।

Thank you for reading this post, don't forget to subscribe!

নিউজটি শেয়ান করুন

© All Rights Reserved © 2019
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com