মঙ্গলবার, ১৩ এপ্রিল ২০২১, ০১:৫৩ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম
দামোদরপুরে সিএনজি মোটর সাইকেল মুখোমুখি সংঘর্ষে যুবক নিহত গাইবান্ধায় সাংবাদিকের উপর হামলার ঘটনায় গ্রেফতার ২ সুন্দরগঞ্জে ঝড়ের উষ্ণ বাতাসে পুড়ে গেছে ৩৫ হেক্টর জমির ফসল গাইবান্ধা জেলা শহরে দোকানসহ মার্কেট-শপিংমল বন্ধ রেখে ব্যবসায়ীদের বিক্ষোভঃ ওসির গ্রেফতার দাবিঃ এসপি অফিস ঘেরাও সুন্দরগঞ্জে বাহিরগোলা জামে মসজিদে এসি লাগানোর উদ্বোধন সাংবাদিক সুমনকে নির্যাতনের ৩ দিনেও আসামী গ্রেফতার হয়নি জুমারবাড়ী রোমা সিনেমা হলের মালিক বুলুকে হত্যা গাইবান্ধায় জেলা আ’লীগ ও পুলিশ সুপারের প্রেস বিফ্রিং বাড়িতে আটক রেখে ব্যবসায়িকে হত্যার প্রতিবাদে মানববন্ধন সাঘাটায় জুমারবাড়ী-সোনাতলা ব্রীজটি ঝুকিপূর্ণঃ বড় ধরণের দূর্ঘটনার আশংকা

আগামী এক মাসের মধ্যেই সেতুর কাজ শুরু হরিপুর-চিলমারি তিস্তা সেতুর স্থান পরিদর্শনে প্রকল্প পরিচালক

আগামী এক মাসের মধ্যেই সেতুর কাজ শুরু হরিপুর-চিলমারি তিস্তা সেতুর স্থান পরিদর্শনে প্রকল্প পরিচালক

সুন্দরগঞ্জ প্রতিনিধিঃ অবশেষে ব্যাপক জল্পনা কল্পনার অবসান ঘটিয়ে তিস্তা পিসি গার্ডার সেতু নির্মাণে আলোর মুখ দেখতে শুরু করেছে। দ্রুত কাজ বাস্তবায়নের জন্য গত শুক্রবার সেতুর স্থান পরিদর্শন করেছেন প্রকল্প পরিচালক প্রকৌশলী আব্দুল মালেক। এ সময় উপস্থিত ছিলেন গাইবান্ধা এলজিইডির নির্বাহী প্রকৌশলী আহসান কবির, সিনিয়র সহকারি প্রকৌশলী সামিউল ইসলাম, সহকারি প্রকৌশলী মোত্তাকিম,উপজেলা প্রকৌশলী আবুল মুনছুর, উপসহকারি প্রকৌশলী মাহবুবুর রহমান প্রমুখ। ২০২০-২০২১ অর্থ বছরের প্রথম সভায় গত ৬ জুলাই জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটি (একনেক) গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ উপজেলার হরিপুর- চিলমারি উপজেলা সদরের সঙ্গে সংযোগকারি সড়কে তিস্তা নদীর উপর ১ হাজার ৪৯০ মিটার দীর্ঘ পিসি গার্ডার সেতু নির্মাণ (দ্বিতীয় সংশোধীত) প্রকল্প অনুমোদন দেয়া হয়।
২০১৮ সালে সমাপ্ত হওয়ার কথা ছিল উপজেলার হরিপুর-চিলমারী তিস্তা সেতু নির্মাণসহ সংযোগ সড়কের কাজ। ১ হাজার ৪৯০ মিটার সেতু নির্মাণের জন্য ১৫৩ একর ভুমি অধিগ্রহনের সিদ্ধান্ত রয়েছে। সে স্থলে কুড়িগ্রাম জেলার ২০ একর ভুমি অধিগ্রহণ করা হয়েছে। গাইবান্ধা জেলার ১৩৩ একর ভুমি এখন পযন্ত অধিগ্রহন সম্পন্ন হয়নি। হরিপুর সেতু সংলগ্ন এলাকা হতে সুন্দরগঞ্জ উপজেলা শহর পর্যন্ত প্রায় ২৫ কিলোমিটার পানি উন্নয়ন বোর্ডের বর্ন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধটি সেতুর সংযোগ সড়কে রুপান্তের কাজ এবং গাইবান্ধার সাদুল্যাপুর ধাপেরহাট থেকে হরিপুর সেতু পর্যন্ত ৫০ কিলোমিটার সংযোগ সড়কের কাজ অনেকটা এগিয়ে রয়েছে। ২০১৪ সালের ২৫ জানুয়ারি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গাইবান্ধার সার্কিট হাউজে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে হরিপুর-চিলমারি তিস্তা সেতুর ভিত্তি উদ্বোধন করেন। এরপর ঝুলে যায় সেতু নির্মাণের কাজ। ৭৩০ কোটি ৮৫ লাখ টাকা বরাদ্দে নির্মাণ করার হবে তিস্তা সেতু। এর মধ্যে ২৭৯ কোটি ৪৭ লাখ টাকা মূল সেতু নির্মাণে ব্যয় হবে। সড়ক নির্মাণে ব্যয় হবে ১০ কোটি ২৫ লাখ টাকা, নদী শাসনে ৮ কোটি ৫৫ লাখ টাকা এবং জমি অধিগ্রহণে ব্যয় হবে ৬ কোটি টাকা। সেতুটিতে পিলার থাকবে ৩০টি এর মধ্যে ২৮টি পিলার থাকবে নদীর ভিতরে অংশে এবং ২টি পিলার থাকবে বাহিরের অংশে। সেতুর উভয়পাশে^ নদী শাসন করা হবে ৩.১৫ কিলোমিটার করে। সেতুর উভয় পাশে^ সড়ক নির্মাণ করা হবে ৫৭. ৩ কিলোমিটার। এর মধ্যে চিলমারি মাটিকাটা মোড় থেকে সেতু পর্যন্ত ৭.৩ কিলোমিটার এবং গাইবান্ধার সাদুল্যাপুর ধাপেরহাট থেকে হরিপুর সেতু পর্যন্ত ৫০ কিলোমিটার। চিলমারী অংশে একসেস সড়ক সেতু থেকে কাশিম বাজার পর্যন্ত ৫.৩ কিলোমিটার এবং গাইবান্ধা ধাপেরহাট থেকে হরিপুর পর্যন্ত ২০ কিলোমিটার। প্রকল্প পরিচালক জানান, আগামি এক মাসের মধ্যেই মুল সেতুর নির্মাণ কাজ শুরু করা হবে।

নিউজটি শেয়ান করুন

© All Rights Reserved © 2019
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com