মঙ্গলবার, ১৬ এপ্রিল ২০২৪, ০৫:১৬ অপরাহ্ন

১২ দিন যাবত গাইবান্ধা-ঢাকা ট্রেন চলাচল বন্ধ: ঈদের চালু হবে কিনা অনিশ্চিত

১২ দিন যাবত গাইবান্ধা-ঢাকা ট্রেন চলাচল বন্ধ: ঈদের চালু হবে কিনা অনিশ্চিত

স্টাফ রিপোর্টারঃ গাইবান্ধার আপ স্টেশন ত্রিমোহিনী-বাদিয়াখালী-বোনারপাড়া পর্যন্ত প্রায় ১ হাজার ফুট রেলের মারাত্মকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। এছাড়াও মাঝে মাঝে অসংখ্য গর্তে বন্যার পানি জমে রয়েছে। ফলে গত ১৭ জুলাই মঙ্গলবার থেকে একটানা ১২ দিন যাবত লালমনিরহাট-সান্তাহার রুটে রাজধানী ঢাকার সাথে সরাসরি ট্রেন চলাচল বন্ধ রয়েছে। ফলে উত্তরাঞ্চলের রেল যাত্রীদের চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে।
এদিকে গতকাল শনিবার বাংলাদেশ রেলওয়ের মহাপরিচালক মোঃ শামসুজ্জামান গাইবান্ধা থেকে বোনারপাড়া রেলওয়ে জংশন পর্যন্ত ক্ষতিগ্রস্ত রেললাইন পরিদর্শন করেন। পরিদর্শন শেষে গাইবান্ধা রেলওয়ে স্টেশনে সাংবাদিকদের বলেন, পুনঃরায় বন্যা বা বৃষ্টির প্রকোপ না বাড়লে আসন্ন ঈদুল আজহার পূর্বেই উত্তরাঞ্চলের সাথে লালমনিরহাট-সান্তাহার রুটে রেল যোগাযোগ পুনঃ স্থাপিত করা হবে। তিনি উল্লেখ করেন, ত্রিমোহিনী থেকে বোনারপাড়া জংশন পর্যন্ত ১ হাজার ফুট রেল লাইনের নিচের মাটি ও পাথর পানির তোড়ে ভেসে গেছে এবং এসব এলাকায় রেললাইন ঝুলন্ত অবস্থায় রয়েছে। তদুপরি বিভিন্ন জায়গায় বড় বড় গর্তের সৃষ্টি হয়েছে এবং তাতে বন্যার পানি জমে আছে। তিনি বলেন, ক্ষতিগ্রস্ত এ সমস্ত এলাকা দ্রুত মেরামত করার উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে। যাতে রেল যাত্রীরা ঈদুল আজহায় স্বাচ্ছন্দে যাতায়াত করতে পারে। রেল লাইন মেরামত না হওয়া পর্যন্ত বিকল্প ব্যবস্থা হিসেবে রংপুর থেকে গাইবান্ধা পর্যন্ত রংপুর এক্সপ্রেস এক্সটেনশন করে পার্বর্তীপুর হয়ে ঢাকা পর্যন্ত চলাচল করানো যায় কিনা সেব্যাপারে সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, বিষয়টি বিবেচনায় নেয়া হবে।
উল্লেখ্য, ইতোপূর্বে গত ২২ জুলাই গত সোমবার ক্ষতিগ্রস্ত রেলপথ পরিদর্শনে আসেন পশ্চিমাঞ্চল রেলওয়ের জেনারেল ম্যানেজার মোঃ শহিদুল ইসলামসহ রেলের উর্দ্ধতন কর্মকর্তারা রেলপথ পরিদর্শন করেন। তারা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে তারা জানিয়েছিলেন, যেভাবে রেলপথ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে তাতে এ রুটে সরাসরি ট্রেন চলাচল স্বাভাবিক করতে সময় লাগবে। তবে আসন্ন ঈদুল আজহার আগে বিকল্প ব্যবস্থায় ট্রেন চলাচল শুরু করার চেষ্টা করা হবে।
তবে বর্তমানে লোকাল এবং মেইল ট্রেন গাইবান্ধা থেকে বোনারপাড়া পর্যন্ত ট্রানজিট পদ্ধতিতে চলাচল করছে। লালমনিরহাট ও দিনাজপুর থেকে ডাউন ট্রেনগুলো গাইবান্ধা স্টেশন পর্যন্ত চলাচল করছে। অপরদিকে সান্তাহার জংশন থেকে বোনারপাড়া পর্যন্ত মেইল ও লোকাল ট্রেনগুলো চলাচল করছে। এছাড়া আন্তঃগর লালমনি এক্সপ্রেস ও রংপুর এক্সপ্রেস ট্রেন দুটি পার্বর্তীপুর-সান্তাহার হয়ে ঢাকায় যাতায়াত করছে।

Thank you for reading this post, don't forget to subscribe!

নিউজটি শেয়ান করুন

© All Rights Reserved © 2019
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com